বারাসাতে বিশিষ্ট লেখকের বাড়িতে হামলা ও মহিলার শ্লীলতাহানির চেষ্টা, অভিযোগ দায়ের 

বারাসাতে বিশিষ্ট লেখকের বাড়িতে হামলা ও মহিলার শ্লীলতাহানির চেষ্টা, অভিযোগ দায়ের 

আরোহী নিউজ ডেস্ক: বারাসাতে লেখকের বাড়িতে মদপ্যদের হামলার ঘটনা ঘটেছে। এসময় ঘরের মেয়েদের শ্লীলতাহানির চেষ্টা সহ  মারধর করে হামলাকারী দুষ্কৃতীরা। লেখকের পরিবারের সদস্যদের মেরে মুখ ও মাথা ফাটিয়ে দেওয়া ছাড়াও খুনের হুমকি দেয় হামলাকারী দুষ্কৃতীরা। গতকাল সপ্তমীর দিনে বারাসাতে এই ঘটনাটি ঘটেছে।  

জানা যায়, মঙ্গলবার রাত ১১ টা নাগাদ বারাসাতের আমবাগান এলাকায় সামান্য ব্যাপার নিয়ে বিশিষ্ট লেখক অভিজিৎ সেনগুপ্তর বাড়িতে চড়াও হয় একদল দুষ্কৃতী। সন্ধ্যেবেলা তাঁদের বাড়ির কুকুর নিয়ে বের হওয়ার পর এলাকার দুষ্কৃতীরা কুকুর নিয়ে বের হতে বারণ করে। একই সাথে তারা লেখকের পরিবারের সদস্যকে নিয়ে কটু মন্তব্য করেন। এর প্রতিবাদ করায় রাতে দলবল নিয়ে ওই দুষ্কৃতীরা হামলা করে। কিছু বুঝে ওঠার আগেই তারা গেটে লাথি মেরে ঘরে ঢোকে এবং আশি বছরের বৃদ্ধ অভিজিৎ বাবুকে মারধর করে। উল্লেখ্য, বারাসাতের নবপল্লী আমবাগান এলাকায় বসবাস করেন অভিজিৎ বাবু। এসময় তারা ঘরে ঢুকে তাঁর মেয়েকেও শ্লীলতাহানি করার চেষ্টা করে, এমনটাই অভিযোগ অভিজিৎ বাবুর পরিবারের। 

অভিজিৎ বাবুর কন্যার স্বামী কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায় বেগতিক দেখে এগিয়ে এলে তাকেও কিল ঘুষি মেরে মাথা ও মুখ ফাটিয়ে দেওয়া হয়। তিনি গুরুতরভাবে জখম হন। কৌশিক বাবু কর্মসূত্রে ব্যাঙ্গালোরে থাকেন। করোনা আবহে তিনি অভিজিৎ বাবুর বাড়ি থেকেই ওয়ার্ক ফ্রম হোম করছেন। মঙ্গলবার রাতে তিনি তাঁর পোষ্য কুকুরকে রাস্তায় ঘুরতে বেরিয়েয়েছিলেন প্রতিদিনের মতো। তখন ওই দুষ্কৃতীরা কৌশিককে হুমকি দিয়ে বলে, রাস্তায় কুকুর নিয়ে ঘোরা যাবে না, এরপরও যদি দেখি তাহলে প্রাণে মেরে দেব। এরপর কৌশিক বাবু বাড়ি ফিরে এলে দুষ্কৃতীরা দলবল নিয়ে বাড়িতে চড়াও হয় ও মারধর শুরু করে বলে অভিযোগ উঠেছে। এই ঘটনার পরে কৌশিক বাবু গতকাল রাতেই বারাসাত থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। এই ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে বারাসাত থানার পুলিশ।