নির্বাচন কমিশনকে একহাত নিলেন দিলীপ ঘোষ

নির্বাচন কমিশনকে একহাত নিলেন দিলীপ ঘোষ

আরোহী নিউজ ডেস্ক:  আদালতে মামলা চলাকালীন ঘোষিত হয়েছে কলকাতার পুরসভার ভোটের দিনক্ষণ। এই নিয়েই নির্বাচন কমিশনকে একহাত নিলেন বিজেপি সর্বভারতীয় সহ সভাপতি দিলীপ ঘোষ। একইসঙ্গে তৃণমূলকেও নিশানা করেন তিনি।

এদিন সকালে দিলীপ ঘোষ বলেন, "রাজ্য নির্বাচন কমিশনকে রাজ্য সরকার চালায়। সে জন্য তাদের ইচ্ছামতো হচ্ছে। সে কারণেই যেটা চাইছে সেটা হচ্ছে। যখন চাইছে তখন হচ্ছে। পুরভোটের বিষয়টি নিয়ে আদালতে শুনানি চললেও কমিশনকে ভোটের নির্ঘণ্ট প্রকাশ করতে হল। এটা নিয়ে সকলেই চিন্তিত।"

দাবি করে দিলীপ ঘোষ বলেন, "তৃণমূল কলকাতা দখলে এতটাই মরিয়া, পুনর্নির্বাচনের সময় পর্যন্ত রাখতে চায়নি"। তাঁর কথায়, "কলকাতায় পুরভোট জেতা তৃণমূলের কাছে একটা চাপের বিষয়। ওরা ভাবছে যে করে হোক কলকাতা জিততে হবে। তাই আদালতে মামলা চলছে, শুনানি হচ্ছে এদিকে নির্বাচন কমিশনকে দিয়ে ভোট ঘোষণাও হয়ে গেল"।

এদিকে, গতকাল ত্রিপুরা ইলেকশনে সন্ত্রাসের অভিযোগ বিরোধীদের। এরপরেই কলকাতা পুরভোট কতটা শান্তিপূর্ন হবে সেই বিষয়ে সংশয় প্রকাশ করে দিলীপ ঘোষ বলেন, "পশ্চিমবাংলায় কোনো ভোট শান্তিতে হয় না আর হবেও না। এটাই পলিটিক্যাল কালচার হয়ে গিয়েছে। যারা ত্রিপুরা ইলেকশন হাহুতাশ করছেন আর এখানে পঞ্চায়েত ভোটে ডজন ডজন লোক মারা যায়। ওখানে কারো মুখে একটু চোট লেগেছে কোথায় পড়ে গিয়েছে কি হয়েছে কেউ জানে না। এতোদিন সন্ত্রাস বলে চালাতেন কোথাও সন্ত্রাস নেই।আপনারা গিয়ে কেউ বলেছেন খেলা হবে, আপনাকে কেউ বলেছেন খেলা হবে।"

তাঁর কথায়, "আপনারা মাইক বাজাচ্ছেন সেখানে কেউ মাইক বাজিয়েছেন সেটাকে সন্ত্রাস বলছেন কেন। দুজন মিলে বাড়িতে দৌড়াদৌড়ি করছেন সেটা দেখিয়েছেন। একটা ফেক ভিডিও দেখানো হয়েছে। কোথায় সন্ত্রাস। কে কাকে সন্ত্রাস করেছে কিছুই দেখা যাচ্ছে না। তারাই চিৎকার করছে আর ভিডিও করা হয়েছে এভাবে একটা হাইপ তৈরি করার চেষ্টা করা হয়েছে"।