ইডেনে টানটান উত্তেজনার ম্যাচে রাজস্থানকে হারিয়ে ফাইনালে পৌঁছে গেল গুজরাত টাইটান্স 

ইডেনে টানটান উত্তেজনার ম্যাচে রাজস্থানকে হারিয়ে ফাইনালে পৌঁছে গেল গুজরাত টাইটান্স 

আরোহী নিউজ ডেস্ক :  দর্শক ভরা  ইডেনে  টানটান থ্রিলার ম্যাচ।  প্রথম কোয়ালিফায়ারে  রাজস্থানকে ৭ উইকেটে হারিয়ে আইপিএল ২০২২-এর ফাইনালে উঠে গেল গুজরাত টাইটান্স। প্রথমে ব্যাট করে রাজস্থান ৬ উইকেট হারিয়ে করে ১৮৮ রান। রাজস্থানের হয়ে ব্যাট হাতে ৮৯ রানের অনবদ্য ইনিংস খেলেন বাটলার। গুজরাতের হয়ে  রান তাড়া করতে নেমে শেষ ওভারে  মিলারের ৬৮ রানের অনবদ্য ফিনিশিং জয় এনে দেয় হার্দিক পান্ডিয়াদের। 

টস জিতে বোলিং করার সিদ্ধান্ত নেন গুজরাত টাইটান্স অধিনায়ক হার্দিক পান্ডিয়া। প্রথমে ব্যাট করতে নেমে ইনিংসের শুরুটা ভালো হয়নি রাজস্থান রয়্যালসের। ৩ রান করে আউট হন যশশ্বী জয়সওয়াল। এরপর ইনিংসের রাশ ধরেন অধিনায়র সঞ্জু স্যামসন ও জস বাটলার। ক্রিজে এসে প্রথম থেকেই বিধ্বংসী ব্যাটিং শুরু করেন সঞ্জু। অপরদিকে এদিন শুরুর দিকে ধীর গতিতে খেলতে দেখা যায় বাটলারকে। ক্রিজে সেট হওয়ার চেষ্টা করতে থাকেন তিনি। দলের হয়ে সর্বোচ্চ ৮৯ রান করেন জস বাটলার। এছাড়া ৪৭ রানের ইনিংস খেলেন সঞ্জু স্যামসন। । প্রথমে ব্যাট করে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে ১৮৮ রান করল রাজস্থান রয়্যালস। 

জবাবে ব্যাট করতে নেমে  শুরুটা ভাল হয়নি গুজরাতের। নিজের ঘরের মাঠে সমর্থকদের হতাশ করে শূন্য রানে আউট হয়ে ফিরে যান ভাল ফর্মে থাকা ঋদ্ধিমান সাহা। কিন্তু ঋদ্ধির উইকেটের পর ওয়েড এবং শুভমান গিলের ব্যাটে ঘুরে দাঁড়ায় টাইটান্সরা। গিল ও ওয়েডের আউট হওয়ার পর ম্যাচে ফের জুটি বেঁধে ইনিংসের হাল ধরেন অধিনায়ক হার্দিক এবং ডেভিড মিলার। মিলার ৩৮ বলে ৬৮ রানের অনবদ্য ইনিংস খেলেন। শেষ ওভারে যখন ১৬ রান দরকার ছিল, তখন প্রথম তিন বলেই ছক্কা হাঁকান তিনি। তাতেই বদলে যায় ম্যাচের ফল। ৭ উইকেটে ম্যাচ জিতে নিয়ে ফাইনালে পৌঁছে গেল গুজরাত টাইটান্স।