জোড়া টিকা নিলেই সিঁদুর খেলা-অঞ্জলিতে ছাড়, পুজো নিয়ে গাইডলাইন হাইকোর্টের

জোড়া টিকা নিলেই সিঁদুর খেলা-অঞ্জলিতে ছাড়, পুজো নিয়ে গাইডলাইন হাইকোর্টের

আরোহী নিউজ ডেস্ক: দুর্গাপুজোয় বাকি আর হাতে গোনা মাত্র কয়েকটা দিন। তার আগেই পুজো নিয়ে নির্দেশকা দিল কলকাতা হাইকোর্ট। আদালত জানিয়েছে, কোভিডের দু'টি টিকা নেওয়া থাকলে অঞ্জলি দেওয়া যাবে এবং সিঁদুর খেলাতেও নেওয়া যাবে অংশ। তবে পুজো মণ্ডপগুলি নো এন্ট্রি জোন রাখার যে নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল তা বহাল থাকছে। করোনা সংক্রান্ত বিধিনিষেধ মানা না হলে পুজো বাতিল করে দেওয়ার অধিকার থাকছে পুলিশের হাতে।

বৃহস্পতিবার বিচারপতি ইন্দ্রপ্রসন্ন মুখোপাধ্যায় এবং বিচারপতি অনিরুদ্ধ রায়ের ডিভিশন বেঞ্চে দুর্গাপুজো সংক্রান্ত মামলার শুনানি হয়। এদিন আদালতের তরফে জানানো হয়েছে, যাঁরা সিঁদুর খেলাতে অংশ নিচ্ছেন তাঁদের টিকার দু'টি ডোজ নেওয়া হয়েছে কিনা সেই দিকে নজর রাখতে হবে উদ্যোক্তাদের। টিকা নেওয়া থাকলে পুজোর কাজে অংশ নেওয়া যাবে। বড় মণ্ডপগুলিতে সর্বাধিক ৪৫ থেকে ৬০ জন প্রবেশ করতে পারবে এবং ছোট মণ্ডপগুলির থেকে সংখ্যাটা ১৫ থেকে ২৫ জন। যদি দুটি টিকা নেওয়া থাকে সেক্ষেত্রে পুজোর কাজে অংশ নেওয়ার ক্ষেত্রে কোনও বাধা নেই। উল্লেখ্য, গত বছর করোনা পরিস্থিতিতে অনেক পুজো কমিটিগুলিই অনলাইনে অঞ্জলির ব্যবস্থা করেছিল। তবে এবারে তার বিকল্প দিল কলকাতা হাইকোর্ট।

উল্লেখ্য, করোনা পরিস্থিতিতে এই বছরও পুজো মণ্ডপগুলি 'নো এন্ট্রি জোন'-ই রাখার নির্দেশ দিয়েছে কলকাতা হাইকোর্ট। গত বছর ১৯ এবং ২১ অক্টোবর পুজো মণ্ডপগুলির ভেতরে দর্শকদের প্রবেশ নিষিদ্ধ বলে জানিয়েছিল হাইকোর্ট। এক্ষেত্রে ব্যরিকেডের বাইরে থেকেই পুজো দেখতে হবে দর্শনার্থীদের।

এদিকে, পুজোর কথা মাথায় রেখে রাত্রিকালীন বিধিনিষেধ কিছুটা শিথিল করেছে রাজ্য সরকার। ১০ অক্টোবর থেকে ২০ অক্টোবর অর্থাৎ পুজোর সময়
রাত্রিকালীন বিধিনিষেধে ছাড়পত্র দেওয়া হয়েছে। অর্থাৎ রাত্রে পুজো দেখতে যেতে পারবেন সাধারণ মানুষ। তবে এক্ষেত্রে সামাজিক দূরত্ববিধি এবং কোভিড সংক্রান্ত বিধিনিষেধ মেনে চলা বাধ্যতামূলক বলে জানানো হয়েছে।