উত্তরপ্রদেশে বিজেপি বিধায়ককে তাড়া করে গ্রামছাড়া করল ভোটাররা

উত্তরপ্রদেশে বিজেপি বিধায়ককে তাড়া করে গ্রামছাড়া করল ভোটাররা

আরোহী নিউজ ডেস্ক: সামনেই উত্তরপ্রদেশে বিধানসভা নির্বাচন। জোরকদমে চলছে ভোটের প্রচার। এই অবস্থায় নিজের বিধানসভা এলাকায় প্রচারে গিয়ে ভোটারদের তাড়ায় গ্রাম ছাড়লেন বিজেপি বিধায়ক বিক্রম সিং সাইনি। যা নিয়ে বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছে।

অভিযোগ, বিক্রম সিং সাইনি খাটুলি গ্রামে প্রচার করতে গেলে গ্রামবাসীদের একাংশ বিরোধিতা শুরু করেন ও স্লোগান দিতে থাকেন। যার ফলে বাধ্য হয়ে প্রচার না করেই ফিরে যান বিজেপি বিধায়ক। গ্রামবাসীদের অভিযোগ, গত ৫ বছরে এলাকায় কোনও উন্নয়ন হয়নি। তাই বিজেপি বিধায়ককে দেখে তাঁরা বিরোধিতা শুরু করে। স্লোগান দিতে থাকেন বিধায়কের গাড়িকে ঘিরে। ঘটনার একটি ভিডিও ভাইরাল গিয়েছে। সেখানে দেখা যাচ্ছে, বিরোধিতার মুখে পড়ে হাতজোড় করে মিনতি করছেন বিজেপি বিধায়ক। পরে গাড়িতেই গ্রাম থেকে বেরিয়ে যান তিনি। যদিও ভিডিওর সত্যতা যাচাই করনি আরোহী নিউজ।

এদিকে বিজেপি বিধায়কের দাবি, বেশ কয়েকজন গ্রামের একটি স্কুলের মধ্যে বসে মদ্যপান করছিলেন। সেই ঘটনার প্রতিবাদ করায় তাঁকে পালটা বিরোধিতার মুখে পড়তে হয়। যাঁরা বিরোধিতা করেন তাঁরা বিরোধী জোটের সমর্থক বলেও দাবি করেন বিক্রম সিং সাইনি। প্রসঙ্গত একাধিকবার বিতর্কিত মন্তব্যের জেরে খবরের শিরোনামে এসেছিলেন এই বিজেপি নেতা। ২০১৯ সালে তিনি বলেছিলেন, যাঁরা ভারতে নিরাপদ অনুভব করেন না তাঁদের বোমা মেরে উড়িয়ে দেওয়া হবে। পরে বিজেপি বিধায়ককে বলতে শোনা যায়, ‘আমাদের দেশের নাম হিন্দুস্তান, যার অর্থ এটা হিন্দুদেরই দেশ।’ এমনকি যাঁরা গোহত্যা করছে, তাদের পা ভেঙে দেওয়ারও হুমকি দিয়েছিলেন বিক্রম সিং সাইনিকে।