বাতিলের পথে মডার্নার টিকা 

বাতিলের পথে মডার্নার টিকা 

আরোহী নিউজ ডেস্ক : আইসল্যান্ড-এও স্থগিত করা হল মর্ডানার টিকা প্রয়োগ। জানা গিয়েছে, এই টিকা নেওয়ার পর একাধিক ব্য়ক্তির মধ্যে হৃৎপিণ্ডে প্রদাহ বা জ্বালা শুরু হওয়াতেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

নর্ডিক অঞ্চলের এই দেশে আপাতত ফািজ়ারের করোনা টিকা দিয়েই টিকাকরণ চালানো হবে বলে জানানো হয়েছে। আইসল্যান্ডের প্রতিবেশী দেশগুলিতেও একই সমস্যা দেখা দেওয়ায় সেই দেশগুলিতেও মডার্নার করোনা টিকা ব্যবহার সীমিত করা হয়েছে। তবে এক ধাপ এগিয়ে আইসল্যান্ড মর্ডানার টিকা ব্যবহার বন্ধ রাখারই সিদ্ধান্ত নিল। আইসল্যান্ডের স্বাস্থ্য দফতরের ওয়েবসাইটে একটি বিবৃতি প্রকাশ করা হয়, দেশের জনগণকে টিকা দেওয়ার জন্য মজুত রাখা ফাইজ়ারের করোনা টিকাই যথেষ্ট। দেশের প্রধান মহামারী বিশেষজ্ঞ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন আপাতত আইসল্যান্ডে মডার্নার করোনা টিকা ব্য়বহার করা হবে না। 

বিবৃতিতে আরও জানানো হয়, মডার্নার করোনা টিকা নেওয়ার পরই একাধিক ব্যক্তির মধ্যে মায়োকার্ডিটিস ও পেরিকার্ডিটিসের সমস্যা দেখা গিয়েছে। ফাইজ়ার-বায়োএনটেকের টিকা ব্যবহার করেও একই সমস্যা দেখা গিয়েছে, তবে তা তুলনামূলকভাবে অনেকটাই কম।  সেই কারণেই আপাতত মডার্নার টিকা ব্যবহার বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। 

বিগত দুই মাস ধরেই আইসল্যান্ড সরকার অতিরিক্ত বা বুস্টার ডোজ় হিসাবে মডার্নার টিকা ব্য়বহার করছিল। আইসল্যান্ডের অধিকাংশ বাসিন্দাই আমেরিকার জনসন অ্যান্ড জনসন সংস্থার তৈরি একক ডোজের ভ্যাকসিন পেয়েছেন। তবে করোনার নতুন ও অভিযোজিত রূপ থেকে বাঁচতেই বৃদ্ধ ও কম রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা সম্পন্ন ব্যক্তিদের অতিরিক্ত করোনা টিকা দেওয়া হচ্ছিল। 

মডার্নার টিকা প্রয়োগ বাতিল করা হলেও এর প্রভাব টিকাকরণ কর্মসূচিতে পড়বে না বলেই জানিয়েছে আইসল্যান্ড সরকার। ৩ লক্ষ ৭০ হাজার বাসিন্দার এই ছোট্ট দেশের ১২ বছরের উর্ধ্বের  ৮৮ শতাংশ বাসিন্দাই ইতিমধ্যে করোনা টিকা পেয়েছেন। 

বৃহস্পতিবার থেকেই সুইডেন ও ফিলন্যান্ডেও ৩০ বছরের কম বয়সীদের জন্য মডার্নার টিকা প্রয়োগে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। ডেনমার্ক ও নরওয়েতেও ১৮ বছরের কমবয়সীদের উপর এই টিকা প্রয়োগে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে।