কৃষকদের জন্য মোদী সরকারের বড়ো সিদ্ধান্ত! দাম বাড়বে না এই সব সারের, ভরতুকি বাড়ানোর ঘোষণা

কৃষকদের জন্য মোদী সরকারের বড়ো সিদ্ধান্ত! দাম বাড়বে না এই সব সারের, ভরতুকি বাড়ানোর ঘোষণা

আরোহী নিউজ ডেস্ক: কৃষকদের জন্য একটা বড়োসড়ো সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্রের নরেন্দ্র মোদী সরকার। চলতি বছরের জন্য ফসফেট এবং পটাশ সারের দাম না বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্র।

এর পাশাপাশি, এই দুই ধরনের সারের উপর ভরতুকি বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। মন্ত্রীসভার অর্থনৈতিক বিষয়ক কমিটি (CCEA) ২০২১-২২ আর্থিক বছরের জন্য ফসফেটিক ও পটাশ সারের বর্ধিত মূল্য প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এর সঙ্গে ফসফেটিক এবং পটাশ সারের ভরতুকি প্রতি বস্তায় ৪৩৮ টাকা বাড়ানোরও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

এর আগে মোদী মন্ত্রিসভার একটি গুরুত্বপূর্ণ বৈঠক হয়। ওই বৈঠকে ফসফেটিক এবং পটাশিয়াম সারের জন্য অতিরিক্ত ২৮,৬৫৫ কোটি টাকার ভরতুকি ঘোষণা করা হয়েছিল।

সরকারি সূত্রে খবর, ফসলের ভালো ফলনের জন্য এই ধরনের সার ব্যবহৃত হয়। এনপিকে সারে ফসফেট এবং পটাশ পাওয়া যায়। কেন্দ্রীয় সরকার কৃষকদের স্বার্থেই এই বড়ো সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ফসফেট এবং পটাশ সারের উপর ২৮ হাজার কোটি টাকার ভরতুকি ঘোষণা করায় রবি ফসল চাষের জন্য সাশ্রয়ী মূল্যে সার কিনতে পারবেন কৃষকরা।

উল্লেখ্য, মন্ত্রীসভার ওই বৈঠকে, অমৃত  প্রকল্পের অধীনে বর্জ্য জল ব্যবস্থাপনার বিষয়ে নতুন পরিকল্পনা ঘোষণা করা হয়েছিল। দ্বিতীয় পর্বের স্বচ্ছ ভারত মিশনের জন্য ১৪১৬০০ কোটি টাকা ঘোষণা করা হয়। এতে কেন্দ্রের অবদান ৩৫,৪৬৫ কোটি টাকা। প্রথম পর্যায়টি অর্থবছর ২০২১-২২ থেকে ২০১৫-২৬ আর্থিক বছর পর্যন্ত। এর জন্য সরকার ৬২,০০৯ কোটি টাকার তহবিল ঘোষণা করেছে।

অন্য দিকে, বছরখানেক সময় ধরে বিতর্কিত তিন কৃষি আইনের বিরুদ্ধে ধারাবাহিক আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছেন কৃষকরা। এমন পরিস্থিতিতে চাষাবাদের প্রয়োজনীয় সারের দাম না বাড়িয়ে ভরতুকি বৃদ্ধির ঘোষণা। কৃষি আইন নিয়ে যে ক্ষতের সৃষ্টি হয়েছে, এ ধরনের সিদ্ধান্তে তাতে মলমের প্রলেপ লাগাতে চাইছে সরকার, এমনটাই ধারণা ওয়াকিবহাল মহলের।