উত্তরাখণ্ডে ভূমিধসের ফলে মৃত্যু বেড়ে ৪২, নৈনিতালে আটকে পর্যটকদের একাংশ

উত্তরাখণ্ডে ভূমিধসের ফলে মৃত্যু বেড়ে ৪২, নৈনিতালে আটকে পর্যটকদের একাংশ

আরোহী নিউজ ডেস্ক: তুমুল বৃষ্টিপাত আর ভূমিধসের জেরে এবার উত্তরাখণ্ডে মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৪২। সরকারি সূত্রে খবর, গত দুদিনে ভয়াবহ দুর্ঘটনার ফলে প্রাণ হারান ৪২ জন।

গাড়োয়াল এবং কুমায়ুন— মূলত উত্তরাখণ্ডকে দু’টি অঞ্চলে ভাগ করা হয়। বুধবার ওই রাজ্যের ডিআইজি জানিয়েছেন, বৃষ্টিতে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে উত্তরাখণ্ডের কুমায়ুন অঞ্চল। ধস নেমে কুমায়ুনের পর্যটন ক্ষেত্র নৈনিতালের সঙ্গে যোগাযোগের সব রাস্তা বন্ধ হয়ে গিয়েছে। বৃষ্টি সংক্রান্ত দুর্ঘটনাও সবচেয়ে বেশি ঘটেছে নৈনিতালেই। মৃতদের মধ্যে ২৮ জনই নৈনিতালের বাসিন্দা। এ ছাড়া আলমোড়া এবং চম্পাওয়াতে ছ’জন করে মোট ১২ জন, পিথোরাগড় এবং উধম সিংহ নগরে এক জন করে মোট দু’জনের মৃত্যু হয়েছে। দুর্যোগে মৃতদের পরিবারকে বুধবার একককালীন চার লক্ষ টাকা করে অর্থ সাহায্যের ঘোষণা করেছে উত্তরাখণ্ড সরকার।

অপরদিকে, মঙ্গলবার রাতে ধস নেমে নৈনিতালের সঙ্গে রাজ্যের বাকি এলাকাগুলির যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে গিয়েছিল। বুধবার অবশ্য প্রশাসন জানিয়েছে, ধস নেমে বন্ধ হয়ে যাওয়া নৈনিতাল-কালাধুঙ্গির রাস্তাটি খুলেছে। ধীরে ধীরে গাড়ি চলাচলও শুরু হয়েছে। ছুটি কাটাতে এসে নৈনিতালে আটকে পড়েছিলেন বহু পর্যটক। রাস্তা খুললেও নৈনিতালের বিভিন্ন জায়গায় বৃষ্টির জন্য রাস্তা খারাপ হয়ে যাওয়ায়, যান চলাচল এখনও ব্যাহত হচ্ছে। সে ক্ষেত্রে রাস্তা খুললেও পর্যটকদের ফিরতে আরও সময় লাগবে।