সভাপতি হওয়ার পর প্রথমবার সাংবাদিক বৈঠকে রামানুজ গঙ্গোপাধ্যায়

সভাপতি হওয়ার পর প্রথমবার সাংবাদিক বৈঠকে রামানুজ গঙ্গোপাধ্যায়

আরোহী নিউজ ডেস্ক : হিসেব করে দেখেছেন মাত্র দেড় দিন হয়েছে নতুন সভাপতির পদ পেয়েছেন। তিনি রামানুজ গঙ্গোপাধ্যায়। সোমবার সাংবাদিকদের মুখোমুখি হলেন রামানুজ গঙ্গোপাধ্যায়। দায়িত্ব পেয়েই প্রথমেই তিনি ধন্যবাদ জানান প্রাক্তন সভাপতি কল্যাণ গঙ্গোপাধ্যায়কে। তিনি জানান এই মূহুর্তে পর্ষদে প্রায় ৩০০ জনের কাছাকাছি কর্মী কাজ করেন। তাদেরকে কুর্নিশও জানিয়েছেন তিনি। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসুর প্রতিও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন নতুন সভাপতি।

এর আগে পশ্চিমবঙ্গ রাষ্ট্রীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের সোশিওলজি ডিপার্টমেন্টের অধ্যাপক ছিলেন তিনি। ২০১৬ সাল পর্যন্ত রেজিস্ট্রার পদও ছিল তাঁর দখলে। সেখান থেকে এত বড় একটা পদ পেয়ে তাঁর প্রথম দায়িত্ব পরীক্ষা যাতে সুষ্ঠভাবে হয় সেইদিকে নজর রাখা। এমনটাই জানিয়েছেন তিনি। বেশ কিছুদিন ধরে সিবিআইয়ের কোপ পড়েছে পর্ষদের ওপর। সেই ব্যাপারেও আপাতত কোনো রকম ধারণা নেই। কিন্ত ছাত্রছাত্রীদের স্বার্থে, বোর্ডের স্বার্থে যা যা প্রয়োজন তিনি সব করতে রাজি বলে জানিয়েছেন।

বর্তমানের পাশাপাশি এদিন বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন প্রাক্তনও। ১০ বছরেরও বেশি সময় ধরে পর্ষদের সভাপতি ছিলেন কল্যাণ গঙ্গোপাধ্যায়। আপাতত বেশ কিছুদিন ধরেই সিবিআইয়ের জেরার মুখে পড়তে হচ্ছে কল্যাণকে। সেই প্রসঙ্গে তিনি এদিন বলেন আদালতের ওপর পুরোপুরি ভাবে ভরসা রাখতে। ৬৯ বছর বয়স পর্যন্ত পর্ষদের সভাপতি পদে ছিলেন কল্যাণ। যখন শুরু করেছিলেন তখন পরীক্ষার্থী ছিল ৯ লক্ষ। বর্তমানে ১১ লক্ষ হয়েছে। সব মিলিয়ে পর্ষদের সকল কর্মীকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন তিনি।