দুটি ভ্যাকসিন নিলেই ন্যাশানাল লাইব্রেরীতে প্রবেশাধিকার পাঠকদের

দুটি ভ্যাকসিন নিলেই ন্যাশানাল লাইব্রেরীতে প্রবেশাধিকার পাঠকদের

আরোহী নিউজ ডেস্ক: কোভিড আবহে দীর্ঘদিন বন্ধ ছিল ন্যাশানাল লাইব্রেরী। সংক্রমণ কিছুটা নিয়ন্ত্রণে আসায় গত নভেম্বর মাস থেকে ফের পাঠকদের জন্য খোলা হয় জাতীয় গ্রন্থাগারের দরজা। তবে সেখানে প্রবেশের ক্ষেত্রে জারি করা হয় একাধিক বিধিনিষেধ। লাইব্রেরীতে বই পড়তে হলে ২৪ ঘণ্টা আগে থেকে স্লট বুক করে রাখতে হচ্ছিল। তবে এবার কোভিড বিধি আরও কিছুটা শিথিল করল ন্যাশানাল লাইব্রেরী কর্তৃপক্ষ। 

এবার থেকে ভ্যাকসিনের দুটি ডোজ নেওয়া থাকলে ন্যাশানাল লাইব্রেরীতে যাওয়ার জন্য আর আগে থেকে স্লট বুক করতে হবে না। প্রবেশদ্বারে ভ্যাকসিনের সার্টিফিকেট দেখালেই আলিপুরের ক্যাম্পাসে ঢুকতে পারবেন পাঠকরা। বর্তমান করোনা পরিস্থিতি ও পাঠকদের চাহিদার কথা মাথায় রেখেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানানো হয়েছে কর্তৃপক্ষের তরফে। লাইব্রেরীর ভেতর পাঠকদের মানতে হবে করোনাবিধি। মাস্ক, স্যানিটাইজারের ব্যবহার বাধ্যতামূলক। মানতে হবে দূরত্ববিধিও। নজরদারির দায়িত্বে থাকবেন একজন সদস্য। 

করোনা আবহে দীর্ঘ ৮ মাস বন্ধ থাকার পর গত ২৩ নভেম্বর খোলা হয় ন্যাশানাল লাইব্রেরী। লাইব্রেরীর প্রবেশের ক্ষেত্রে অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে আগে থেকে স্লট বুক করতে হচ্ছিল পাঠকদের। অন্যদিকে, ৬০ বছরের বেশি বয়সিদের ক্ষেত্রে প্রবেশের অনুমতি দেওয়া হয়নি। তবে এবার মানতে হবে না সেই নিয়ম। যদিও ভ্যাকসিনের দুটি ডোজ না নেওয়া থাকলে স্লট বুক করেই যাওয়া যাবে লাইব্রেরীতে। লাইব্রেরী খোলা থাকবে সকাল ৮টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত। তবে ১৮ বছরের নীচে কোনও পাঠককে প্রবেশ অনুমতি দেওয়া হচ্ছে না।