ওড়িশায় মর্মান্তিক পথ দুর্ঘটনা, মৃত বাংলার ৬ পর্যটক 

ওড়িশায় মর্মান্তিক পথ দুর্ঘটনা, মৃত বাংলার ৬ পর্যটক 

আরোহী নিউজ ডেস্ক :   ঘুরতে যাওয়াই হল কাল। ওড়িশায় ভয়াবহ দুর্ঘটনার কবলে পড়ল বাংলার পর্যটকের একটি দল। ওই দুর্ঘটনায় মৃতের সংখ্যা ৬। আহত কমপক্ষে ২৫ জন। ওড়িশার দারিংবাড়ির কাছে গঞ্জামে মর্মান্তিক পথ দুর্ঘটনার সম্মুখীন হয় যাত্রী বোঝাই বাসটি। আহতরা গঞ্জামের একটি  হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তবে কীভাবে ওই দুর্ঘটনা ঘটল তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

জানা গিয়েছে, হাওড়ার উদয়নারায়ণপুরের সুলতানপুর থেকে ২৩ মে  ৬০ জন পর্যটক সমেত একটি একটি বাস ছাড়ে। গন্তব্য বিশাখাপত্তনম।  মঙ্গলবার গভীর রাতে দারিংবাড়ি থেকে ফেরার পথে নিয়ন্ত্রণ হারায় বাসটি। তবে কোনওরকমে চালক বাসটিকে সমতলে নামিয়ে আনেন। কিন্তু শেষ রক্ষা হয়নি। ওড়িশার গঞ্জামের ভঞ্জনগর এলাকায় উলটে যায় পর্যটক বোঝাই বাসটি।
 
দুর্ঘটনার খবর পেয়ে স্থানীয়রাই প্রথমে উদ্ধারকাজে হাত লাগায়। ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় হাওড়ার উদয়নারায়ণপুরের ৫ জনের। তাঁদের নাম মৌসুমি দেড়ে, রিমা দেড়ে, সুপ্রিয়া দেড়ে, সঞ্জীব পাত্র, বর্ণালী মান্না। এছাড়া হুগলির স্বপন গুছাইত নামের এক বাসিন্দারও মৃত্যু হয়। সূত্রের খবর, এই ঘটনায় আহত ২৫ জন গঞ্জামের একটি হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন।


এদিকে দুর্ঘটনায় মৃত্যুর খবর উদয়নারায়ণপুরে পৌঁছতেই শোকের ছায়া নেমে এসেছে এলাকায়। কান্নায় ভেঙে পড়েছে পরিবারের সদস্যরা। ভিন রাজ্য থেকে আপাতত স্বজনদের দেহ ঘরে ফেরার অপেক্ষায় প্রহর গুনছেন তাঁরা। এদিকে দুর্ঘটনার কারণ খতিয়ে দেখছে পুলিশ। 

এদিকে ওই দুর্ঘটনায় বাংলার পর্যটকদের মৃত্যুতে শোকপ্রকাশ করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ময়নাতদন্তের শেষে মৃতদেহ ও আহতদের দ্রুত ফেরানোর চেষ্টা রাজ্য সরকার করছে বলে এক ট্যুইট বার্তায় জানান মুখ্যমন্ত্রী। এ ব্যাপারে ওড়িশা সরকারের সঙ্গে যোগাযোগ করা হচ্ছে বলেও জানান মমতা। সেই সঙ্গে মুখ্যসচিবের নেতৃত্বে একটি উচ্চপর্যায়ের দল ওড়িশা যাচ্ছেন বলেও জানান তিনি। সেই দলে রয়েছে উদয়নারয়ণপুরের বিধায়কও।