ফের ত্রিপুরায় আক্রান্ত তৃণমূল, হাসপাতালে ভর্তি শান্তনু সাহা

ফের ত্রিপুরায় আক্রান্ত তৃণমূল, হাসপাতালে ভর্তি শান্তনু সাহা

আরোহী নিউজ ডেস্ক: ত্রিপুরায় ফের আক্রান্ত তৃণমূল কংগ্রেস। ত্রিপুরা প্রদেশ যুব তৃণমূল কংগ্রেসের স্টিয়ারিং কমিটির সদস্য শান্তনু সাহাকে বেধড়ক মারধরের অভিযোগ বিজেপি কর্মীদের বিরুদ্ধে। 

শুক্রবার রাতে আগরতলায় শান্তনুর বাড়িতে হামলা চালায় বিজেপি কর্মীরা এমনটাই অভিযোগ তৃণমূলের। তার বাড়িতে হামলা চালিয়ে তাকে বেধড়ক মারধর করারও অভিযোগ উঠেছে বিজেপি-র বিরুদ্ধে। ঘটনার পরে শান্তনুকে হাসপাতালে নিয়ে যেতে হয়। এই ঘটনার তীব্র নিন্দা করেছে তৃণমূল কংগ্রেস এবং শনিবার বিকেলে আগরতলায় থানা ঘেরাও কর্মসূচির ডাক দিয়েছে তারা। শান্তনুকে দেখতে হাসপাতালে যান ত্রিপুরা প্রদেশ তৃণমূল কংগ্রেসের  স্টিয়ারিং কমিটির আহ্বায়ক সুবল ভৌমিক। 

এর আগে ত্রিপুরায় দলীয় কর্মসূচিতে যোগ দিতে গিয়ে আক্রান্ত হন তৃণমূলের  যুব নেতা দেবাংশু ভট্টাচার্য, সুদীপ রাহা এবং জয়া দত্তরা। বিজেপি-র বিরুদ্ধে হামলার অভিযোগ করেন তাঁরা। এরপরেই গ্রেফতার করা হয় এই তিন যুব নেতা-সহ তৃণমূলের একাধিক নেতা-কর্মীকে। এই ঘটনার প্রতিবাদে সরব হয় তৃণমূল। তড়িঘড়ি ত্রিপুরা যান তৃণমূলের তিন শীর্ষ নেতা দোলা সেনা, ব্রাত্য বসু এবং কুণাল ঘোষ।

ত্রিপুরায় যান তৃণমূলের  সর্বভারতীয় সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। সহকর্মীদের মুক্তির দাবিতে সারাদিন খোয়াই থানায় বসেছিলেন তিনি। শেষে ত্রিপুরা আদালত থেকে জামিন পান ১৪ জন তৃণমূল নেতা। দেবাংশু, জয়া এবং সুদীপকে সঙ্গে নিয়ে কলকাতায় ফেরেন অভিষেক।