দিনহাটায় তৃণমূলের গোষ্ঠী সংঘর্ষে মৃত ২

দিনহাটায় তৃণমূলের গোষ্ঠী সংঘর্ষে মৃত ২

আরোহী নিউজ ডেস্ক: উৎসবের মরশুমেও প্রকাশ্যে তৃণমূলের গোষ্ঠীকোন্দলের অভিযোগ। দিনহাটায় তৃণমূল কংগ্রেসের দুই গোষ্ঠীর মধ্যে সংঘর্ষের জেরে মৃত্যু হয়েছে দু'জনের। মৃতদের নাম মান্নান হক ও মুজাফফর হোসেন। অভিযোগ, মান্নানকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। অপরদিকে মুজাফফর হোসেনের গলায় গুলির ক্ষত দেখা গিয়েছে। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, রবিবার রাতে দিনহাটার গীতালদহের মরাকুঠি এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। নিহত দুই ব্যক্তিই এলাকার তৃণমূল তৃণমূল কংগ্রেস কর্মী বলে পরিচিত ছিলেন।

জানা গিয়েছে, মৃতদের বাড়ি দিনহাটার ভোগরাম পয়স্থি গ্রামে। তৃণমূলের দুই গোষ্ঠীর মধ্যে সংঘর্ষে জেরেই তাঁদের মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ এলাকাবাসীর। ঘটনায় আরও পাঁচজন ব্যক্তি আহত হয়েছে বলে খবর। আহত জাহাঙ্গীর আলমের ডান হাতে ধারালো অস্ত্রের কোপ মারা হয়েছে। বাকি চারজনকেও আহত ধারালো অস্ত্রের আঘাত করা হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। পুলিশ জানিয়েছে এলাকার প্রভাবশালী দুই তৃণমূল কংগ্রেস নেতা মান্নান হোসেন ও দিলদার হোসেনের দুই গোষ্ঠীর মধ্যে সংঘর্ষ বেধেছিল৷

এলাকায় ক্ষমতা দখলকে কেন্দ্র করে দুই গোষ্ঠীর মধ্যে দীর্ঘদিন থেকেই বিবাদ রয়েছে। রবিবার রাতে দিলদার হোসেনের বাড়িতে পারিবারিক অনুষ্ঠানে গিয়েছিল তার সমর্থকরা। তখন ধারালো অস্ত্র ও আগ্নেয়াস্ত্র হাতে মান্নান হোসেনের কর্মীরা হানা দেয় বলে অভিযোগ৷ হামলাতে গুরুতর জখম হন দিলদারের সমর্থকরা। কয়েক রাউন্ড গুলি চালানো হয়েছে বলেও অভিযোগ৷ রক্তাক্ত অবস্থায় তাদের দিনহাটা হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। তবে গুরুতর আহত মান্নান হক ও মুজাফফর হোসেনের শারীরিক আবস্থার অবনতি হওয়ায় তাঁদের কোচবিহার এম জে এন হাসপাতালকে স্থানান্তরিত করা হয়। যদিও শেষ পর্যন্ত দু'জনকেই মৃত বলে ঘোষনা করেন চিকিৎসক। বাকি আহতদের চিকিৎসা চলছে দিনহাটা হাসপাতালে।

এদিকে, ভবানীপুরে জয়ী হওয়ার পরই দিনহাটা উপনির্বাচনের প্রার্থীর নাম ঘোষণা করেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। দিনহাটা কেন্দ্রে দলের জেলা সভাপতি তথা পরাজিত প্রার্থীর উপরই ভরসা রেখে উদয়ন গুহর নাম ঘোষণা করেন নেত্রী। জয়ের ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী উদয়ন গুহও একেবারে BJP-শূন্য দিনহাটা করার ডাক দিয়েছেন।