ফের প্রকাশ্যে বিরাট কোহলি বনাম বিসিসিআই দ্বন্দ্ব

ফের প্রকাশ্যে বিরাট কোহলি বনাম বিসিসিআই দ্বন্দ্ব

আরোহী নিউজ ডেস্ক: ফের নয়া মাত্রা পেল বিরাট কোহলি বনাম সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় দ্বন্দ্ব। দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের আগে বিস্ফোরক প্রেস কনফারেন্স নিয়ে বিরাট কোহলিকে শোকজ করতে চেয়েছিলেন বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট। টি-২০, ওডিআই, তারপর টেস্ট একে একে ভারতীয় দলের সব ফর্ম্যাটের অধিনায়কত্ব হারিয়েছেন বিরাট কোহলি। ফের শিরোনামে বিরাট কোহলি বনাম সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের দ্বন্দ্ব। হঠাৎই সামনে এল চাঞ্চল্যকর তথ্য। যা রীতিমত আলোড়ন তৈরি করেছে ভারতীয় ক্রিকেটে। ফের একবার সৌরভ বনাম বিরাট দ্বন্দ্ব নিয়েছে নতুন মোড়। এক সূত্রের খবর অনুযায়ী, দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের দল ঘোষণা, বিরাটকে একদিনের দলের অধিনায়কত্ব থেকে অব্যাহতি দেওয়ার বিস্ফোরক সাংবাদিক বৈঠক করেছিলেন কোহলি। তারপরই নাকি বিরাট কোহলিকে শোকজ করতে চেয়েছিলেন বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট।

যদিও বিসিসিআইয়ের অন্য কর্তাদের তৎপরতায় তা হয়ে ওঠেনি। দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে টেস্ট সিরিজে হারের পর টেস্ট দলেরও অধিনায়কত্ব ছেড়েছেন বিরাট কোহলি। বর্তমানে চলছে একদিনের সিরিজ। কিন্তু এরই মধ্যে বিস্ফোরক তথ্য সামনে এসেছে। জানা যায় বিরাটের সাংবাদিক বৈঠকের পরই বোর্ড বিরোধী আচরনের জন্য তাকে শাস্তি দিতে উদ্যত হয়েছিলেন বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়, প্রচন্ড ক্ষুব্ধ হয়েছিলেন তিনি। দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের আগেই বিরাট কোহলিকে শোকজ করতে চেয়েছিলেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। সেই সিদ্ধান্ত বোর্ড কর্তাদের জানিয়েও দিয়েছিলেন তিনি। যদিও বিসিসিআই কর্তারা এত বড় সিদ্ধান্ত না নেওয়ার জন্য সৌরভকে রাজি করান। যদিও এই বিষয়ে এখনও কোনও মুখ খোলেননি সৌরভ ও বিরাট। কিন্তু তারা মুখ না খুললেও সৌরভ বনাম বিরাট দ্বন্দ্ব যে নতুন মাত্রা পেল তা বলাই যায়।