বিশ্ব ব্যাঙ্কের পর স্কুল-কলেজ খোলার দাবি সেলেবদের

বিশ্ব ব্যাঙ্কের পর স্কুল-কলেজ খোলার দাবি সেলেবদের

আরোহী নিউজ ডেস্ক : স্কুল কলেজ খোলার দাবিতে এতদিন পথে নেমেছিল পড়ুয়ারা। রাজনৈতিক মহলে তুমুল উত্তেজনা ছড়িয়ে ছিল এই বিষয়ে। আর এবার সোশ্যাল মিডিয়াতেও উঠল এই ঝড়। সমাজের বিশিষ্টদের এক পোস্টেই এখন ট্রেন্ডিং "ওপেন স্কুল কলেজ ইউনিভার্সিটি"।

কুড়ি মাস পর স্কুল খুললেও কোভিডের বাড়বাড়ন্তে ফের বন্ধ পাঠশালা। আর সেখানে দাঁড়িয়েই রাজ্যের পানশালা, মেলা সবই খোলা তবে কেন বন্ধ থাকবে পাঠশালা? সেই প্রশ্ন নিয়ে একাধিকবার পথে নেমেছিল পড়ুয়াদের একাংশ। আর এবার সেই তালিকায় সরব হলেন সমাজের বিশিষ্ট থেকে শুরু করে সেলিব্রেটিরা। শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার দাবি জানিয়ে #openschoolcollegeuniversities পোস্ট দিয়ে বন্ধ স্কুল-কলেজ খোলার দাবি জানানো শুরু হয়েছে। যাতে বৃহস্পতিবার  দেখা গেল বিশিষ্ট গায়ক শ্রীকান্ত আচার্য এবং তাঁর গীতিকার স্ত্রী অর্ণা শীল ও আরও বেশকিছুজনকে। পোষ্টে তারা লিখেছেন, "যতদিন না গর্জে উঠবো, ততদিন সুরাহা হবেনা। অভিভাবক হিসেবে বলছি, এবার মনে হয় গর্জে ওঠা দরকার প্রত্যেক অভিভাবকের। আমার সন্তানের ভবিষ্যত নষ্ট হয়ে যাচ্ছে, নষ্ট করে দিচ্ছে। মা/বাবা হিসেবে সন্তানের এতো বড়ো ক্ষতিতেও যদি আওয়াজ না তুলি তাহলে তো মা/বাবা হওয়ার যোগ্য নই।

সেই পোষ্টে তাঁরা আরও লিখেছেন,"ভীষণ ভাবে দাবী জানাচ্ছি, অবিলম্বে ইউনিভার্সিটি, কলেজ, স্কুল খোলা হোক। করোনার গল্প অনেক হোলো। প্লিজ এবার স্টেজ থেকে নামুন, ভবিষ্যত নিয়ে আর খেলবেননা। নিজেরা কিছুদিন পরেই ভার্স ত্যাগ করবেন, যারা থেকে যাবে, তাদের ভালো ভাবে থাকার রাস্তাটা বন্ধ করে দিয়ে যাবেন না।"

পাশাপাশি স্কুল কলেজ খোলা বন্ধ রাখা নিয়ে প্রশ্ন তুলল বিশ্বব্যাঙ্কও। তাদের মত," শিশুদের টিকাকরণ না হলে স্কুল কলেজ বন্ধ রাখা বৈজ্ঞানিকভাবে ভিত্তিহীন। স্কুল খোলা নিয়ে সংক্রমণ বাড়ার কোনও সম্পর্ক নেই। রেস্তোরাঁ শপিংমল খোলা রেখে স্কুল বন্ধ রাখা অর্থহীন।"

তবে কিছুদিন আগেই শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু জানিয়েছিলেন, "সরকারের পক্ষ থেকেও যত শীঘ্রই সম্ভব স্কুল কলেজ খোলার ব্যবস্থা করা হচ্ছে। পরিবার পরিকল্পনা থাকায় প্রভুর প্রতি রয়েছে শিক্ষা দফতরের।  যত দ্রুত সম্ভব স্কুল-কলেজ খোলা হবে।"