কংগ্রেসের 'লড়কি' এবার যোগ দিলেন বিজেপিতে!

কংগ্রেসের 'লড়কি' এবার যোগ দিলেন বিজেপিতে!

আরোহী নিউজ ডেস্ক :  কংগ্রেসের নারী ক্ষমতায়নের 'পোস্টার গার্ল' এবার  বিজেপিতে! উত্তরপ্রদেশ বিধানসভা নির্বাচনে কংগ্রেস থেকে টিকিট না পেয়ে বিজেপি-তে যোগ দিলেন 'লড়কি হুঁ, লড় সকতি হুঁ' কর্মসূচির প্রধান মুখ প্রিয়ঙ্কা মৌর্য। 

বুধবার প্রিয়াঙ্কা মৌর্য কে লখনৌয়ের বিজেপির কার্যালয়ে দেখা যায়। তিনি কি বিজেপিতে যোগ দেবেন ? এই সংক্রান্ত প্রশ্নের উত্তরে প্রিয়ঙ্কা বলেন, "সম্ভবত হ্যাঁ"। সেখানে তিনি তাঁর ক্ষোভ উগরে দিয়ে জানান, "এই ময়দানে আমি অনেক লড়াই করেছি। কিন্তু, পূর্ব পরিকল্পনা মতো টিকিট বিতরণ হয়েছে। আমাকে টিকিট দেওয়া হয়নি। কিন্তু, আমি একজন যোগ্য প্রার্থী ছিলাম। 'লড়কি হুঁ, লড় সকতি হুঁ' একটি স্লোগান। কিন্তু, কংগ্রেস আমাকে লড়ার সুযোগ দেয়নি।"

উত্তরপ্রদেশ মহিলা কংগ্রেসের সহ সভাপতি প্রিয়ঙ্কা মৌর্য। কংগ্রেস থেকে টিকিট না পেয়ে শীঘ্রই তিনি অন্য দলে যাবেন যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। প্রিয়াঙ্কা গান্ধী নারী ক্ষমতায়নের পাশে দাড়িয়ে 'লড়কি হুঁ, লড় সকতি হুঁ' কর্মসূচি শুরু করেছিলেন । আর সেই স্লোগানকে হাতিয়ার করেই উত্তরপ্রদেশে বিধানসভায় মহিলা ভোটকে প্রভাবিত করতে চেয়েছিলেন। এমনকি কংগ্রেসের প্রার্থী তালিকাদেও মহিলা প্রার্থীদের আধিক্য দেখা যায় ।  প্রিয়াঙ্কা মৌর্য ছিলেন  'লড়কি হুঁ, লড় সকতি হুঁ' পোষ্টারের অন্যতম প্রধান মুখ । তবে টিকিট না পেয়ে তাঁর বিজেপিতে যোগদান করার সিদ্ধান্ত কংগ্রেসকে যথেষ্ট বিড়ম্বনায় ফেলেছে বলেই মত রাজনৈতিক মহলের। 

দেশের অন্যতম বড় এই রাজ্যে বিধানসভায় মোট আসন ৪০৩টি। এর আগে ২০১৭ সালে বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপি  ৩১২টি আসনে জয়লাভ করে ক্ষমতায় এসেছিল। সেই সময়ে জোট বেঁধেও বিশেষ লাভ করতে পারেনি সমাজবাদী পার্টি ও কংগ্রেস। আর তাই এবার কংগ্রেস একাই নির্বাচনে অংশগ্রহণ করার সিদ্ধান্ত নেয়। তবে জাতীয় রাজনীতিতে কিছুটা অন্যভাবে নিজেদের তুলে ধরার জন্য কংগ্রেস নারী ক্ষমতায়নের প্রতি জোর দিয়েছেন । আর সেই পরিস্থিতিতে প্রিয়াঙ্কা মৌর্যর বিজেপির যোগদান দলের ভাবমূর্তিতে  খানিকটা ধাক্কা দেবে বলেই মত রাজনৈতিক মহলের।