কিশোর অপহরণে রাহুল গান্ধীর ট্যুইট, বেজিংকে চাপ নয়াদিল্লির 

কিশোর অপহরণে রাহুল গান্ধীর ট্যুইট, বেজিংকে চাপ নয়াদিল্লির 

আরোহী নিউজ ডেস্ক : অরুণাচলের কিশোরকে অপহরণের অভিযোগ চিনা বাহিনী পিএলএ-র বিরুদ্ধে। প্রাক্তন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধীর ট্যুইটের পরেই তৎপর সেনা। হটলাইনে পিএলএ-র সঙ্গে যোগাযোগ। বাহিনীর তৎপরতার পরেই প্রোটোকল মেনে কিশোরকে ফেরানোর প্রক্রিয়া শুরু চিনা বাহিনীর।

লাইন অফ অ্যাকচুয়াল কন্ট্রোলে নতুন কীর্তি চিনা সেনার। দেশের ভিতর ঢুকে অরুণাচলে কিশোরকে অপহরণ করল পিএলএ। আর এমন অপহরণের অভিযোগ প্রথম নজরে আনেন প্রাক্তন কংগ্রেস সাংসদ রাহুল গান্ধী। তাঁর টুইটের পরেই কিশোরকে ফেরাতে তৎপরতা শুরু বাহিনীর। 

বিষয়টি প্রথম নজরে আনেন অরুণাচল পূর্বের সাংসদ তাপির গাও। বুধবার রাতের দিকে তিনি টুইট করে মিরাম তারোনকে অপহরণের বিষয়টি জানান। বিষয়টি নজরে আনার জন্য টুইটে তিনি ট্যাগ করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহকেও। অভিযোগ করেন, দেশের অভ্যন্তরে ঢুকে সাংপো নদীর ধার থেকে মিরাম তারোনকে অপহরণ করা হয়। ঘটনাচক্রে, এই সাংপো নদী সংলগ্ন এলাকাতেই বছর চারেক আগে বেআইনি ভাবে রাস্তা তৈরি করেছিল চিনা সেনা। এই অবস্থায় দেশের অভ্যন্তরে ঢুকে মিরাম তারোন ও তার বন্ধু জনি ইয়াইয়িংকে অপহরণ করে পিএলএ। তবে, চিনা সেনার হাত ছাড়িয়ে কোনও ভাবে জনি পালাতে সক্ষম হয়। কিন্তু পালাতে পারেনি মিরোম।

এই অবস্থায় এদিন সকালে কিশোরকে অপহরণের ঘটনা টু্ইট করে কেন্দ্রকে নিশানা করেন কংগ্রেস সাংসদ রাহুল গান্ধী। মিরাম তারোনের অপহরণের বিষয়টি নজরে এনে রাহুল গা্ন্ধী অভিযোগ করেন, চিনা সেনার এমন কাজে প্রধানমন্ত্রীর কিছু আসে যায় না।

রাহুল গান্ধী বিষয়টি নিয়ে সরব হতেই তৎপরতা শুরু করে কেন্দ্র। অপহৃত কিশোরকে ফেরাতে জোর তোড়জোড় শুরু হয়। সূত্রের খবর, হটলাইন মারফত ইতিমধ্যেই পিএলএ-র সঙ্গে সেনা যোগাযোগ করেছে। কিশোরকে ফেরানোয় চিনের সহযোগিতা চাওয়া হয়েছে। প্রোটোকল মেনেই চিনা বাহিনী মিরামকে ফেরাবে বলে মনে করছে সেনা। চিনা বাহিনীর থেকে কবে মুক্তি মিলবে অরুণাচলের কিশোরের এখন সেটাই দেখার।