বয়স ও দূরত্বকে প্রাধান্য, বদলিকরণ নিয়ে নয়া নির্দেশিকা শিক্ষা দফতরের

বয়স ও দূরত্বকে প্রাধান্য, বদলিকরণ নিয়ে নয়া নির্দেশিকা শিক্ষা দফতরের

আরোহী নিউজ ডেস্ক: শিক্ষক-শিক্ষিকাদের বদলিতে এবার নতুন নিয়ম। নজর দেওয়া হবে বয়স,বাড়ি ও স্কুলের দূরত্বকে। বুধবার শিক্ষা দফতরের পক্ষ থেকে একটি নির্দেশিকা জারি করা হল। সেখানে বলা হয়েছে বাড়ি থেকে স্কুলের দূরত্ব ২০০ থেকে ৫০০ কিলোমিটার হলে নির্দিষ্ট শিক্ষক বা শিক্ষিকা বদলির ক্ষেত্রে পাবেন ৩ নম্বর। পাঁচশো কিলোমিটারের বেশি দূরে কর্মরত হলে তিনি পাবেন ৫ নম্বর। চল্লিশ বছর বয়স পর্যন্ত শিক্ষক-শিক্ষিকারা বদলির আবেদনে ১ নম্বর পাবেন। ৪১ থেকে ৫০ বছর বয়সীরা পাবেন ২ নম্বর। ৫১ বছর বয়সের বেশি হলে বরাদ্দ ৩ নম্বর।  এই নিয়মে বদলির আবেদন করা হলে কোনও  প্রধান শিক্ষক বা পরিচালন সমিতি বাধা দিতে পারবে না।

রাজ্য সরকারের উৎসশ্রী প্রকল্পের সাহায্যে ১ আগস্ট থেকে রাজ্যের স্কুল শিক্ষকদের বদলি প্রক্রিয়া চলছে। তবে সেখানে স্কুলের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলেছেন একাধিক শিক্ষক শিক্ষিকা। স্কুলগুলির বক্তব্য, নির্দিষ্ট বিষয়ে একজন শিক্ষককে ছেড়ে দিলে ওই বিষয়ে পড়াবে কে? স্কুলশিক্ষা দফতর জানিয়েছে, বিষয়টি দেখবেন নির্দিষ্ট জেলার স্কুল পরিদর্শক। মেডিক্যাল গ্রাউন্ড-এর ক্ষেত্রে আবেদন করলে রেজিস্টার্ড ডাক্তারের প্রেসক্রিপশন লাগবে। এদিনের নির্দেশিকায় জানানো হয়েছে শিক্ষক-শিক্ষিকার নিজের বা তাঁর সন্তানের বা তাঁর স্বামী বা স্ত্রীর হৃদরোগ, কিডনি বিকল, থ্যালাসেমিয়া, অঙ্গ প্রতিস্থাপন বা স্ত্রী রোগের মতো গুরুতর সমস্যা থাকলে বদলিতে বিশেষ সুবিধা পাবেন।

এর পাশাপাশি সংশোধিত নির্দেশিকায় বলা হয়েছে ৫ অথবা এর কম শিক্ষক আছেন এমন স্কুলের শিক্ষকরাও বদলির ক্ষেত্রে আবেদন করতে পারবেন। ডিআইরা অন্য স্কুল থেকে অস্থায়ী ভিত্তিতে শিক্ষক নিয়োগ করবেন। কমিশনার অফ স্কুল এডুকেশনকে এক্ষেত্রে রিপোর্ট করবেন ডিআই। জুনিয়র হাইস্কুলের কম শিক্ষক আছেন এমন পরিস্থিতিতেও শিক্ষকরা বদলির আবেদন করতে পারবেন। সিঙ্গেল টিচার অথবা জুনিয়র হাইস্কুলের শিক্ষকদের বদলির দায়িত্ব ডিআইদের নিতে হবে। আবেদনকারীর ঘাড়ে দায়িত্ব চাপিয়ে দেওয়া যাবে না।