নিষিদ্ধ হল জনপ্রিয় গেমিং অ্যাপ ড্রিম ১১ 

নিষিদ্ধ হল জনপ্রিয় গেমিং অ্যাপ ড্রিম ১১ 

আরোহী নিউজ ডেস্ক : নিষিদ্ধ অন্যতম জনপ্রিয় গেমিং অ্যাপ ড্রিম ১১। ড্রিম ১১-এর বিরুদ্ধে কর্নাটকে একটি মামলা করা হয়েছে। ড্রিম ১১ আপের পিছনে রয়েছে টাইগার গ্লোবাল। একটি নতুন স্থানীয় আইন লঙ্ঘনের অপরাধে এই মামলা করা হয়েছে। কর্ণাটকের নতুন আইন অনুযায়ী, এই সপ্তাহে কার্যকর হয়েছে তাতে বাজি এবং বাজির সাথে জড়িত অনলাইন গেমগুলিকে নিষিদ্ধ করা হয়েছে যেগুলিতে কোনও কাজ বা অর্থের ঝুঁকি, অথবা দক্ষতার খেলায় অজানা ফলের আশঙ্কা রয়েছে। সিকোইয়া ক্যাপিটালের অর্থ সাহায্যে পরিচালিত মোবাইল প্রিমিয়ার লিগ সহ অনেক গেমিং অ্যাপ, কর্ণাটকের ব্যবহারকারীদের পরিষেবা দেওয়া বন্ধ করে দিয়েছে, কিন্তু ড্রিম ১১ চালু ছিল। ড্রিম ১১ এবং এমপিএল প্ল্যাটফর্মগুলি, খেলোয়াড়দের জন্য নগদ পুরস্কার সহ অর্থ প্রদানের প্রতিযোগিতার সুযোগ দেয়। 

সূত্র মারফত জানা যায়, ৪২ বছর বয়সী ক্যাব চালকের অভিযোগের ভিত্তিতে কর্ণাটকের বেঙ্গালুরুতে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে, ড্রিম ১১ এর প্রতিষ্ঠাতাদের বিরুদ্ধে। ওই ক্যাব চালক জানান নিষেধাজ্ঞা কার্যকর হওয়ার পরেও গেমিং অ্যাপটি চালু রয়েছে। যদিও ড্রিম ১১ এর পক্ষ থেকে জানান হয়েছে কোনো নির্দিষ্ট উদ্দেশ্যে এই অভিযোগ করা হয়েছে। ড্রিম ১১ এর মুখপাত্র জানিয়েছেন তারা একটি দায়িত্বশীল, আইন মেনে চলা সংস্থা এবং যে কোন কর্তৃপক্ষকে তারা পূর্ণ সহযোগিতা প্রদান করবেন। কর্ণাটকের নিষেধাজ্ঞা উদ্বেগ বাড়িয়েছে যে রাজ্যের ক্রমবর্ধমান নিয়মগুলি ভারতে নতুন কিন্তু জনপ্রিয় গেমিং শাখাকে আঘাত করতে পারে। এই ক্ষেত্রে বিগত মাসগুলিতে বিদেশী বিনিয়োগকারীরা লক্ষ লক্ষ ডলার বিনিয়োগ করেছে।  সাম্প্রতিক সময়ে ব্যাপক বিপণন এবং নিয়োগের মাধ্যমে দ্রুত বৃদ্ধি পেয়েছে এদের চাহিদা। কর্ণাটক এই নতুন আইন লঙ্ঘনকারীদের উপর প্রচুর জরিমানা এবং কারাদণ্ড আরোপ করেছে।