গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার দাবিতে জেলায় জেলায় মিছিল বিজেপির

গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার দাবিতে জেলায় জেলায় মিছিল বিজেপির

আরোহী নিউজ ডেস্ক : ভোট পরবর্তী সন্ত্রাসের অভিযোগে তৃতীয় তৃণমূল সরকারের বর্ষপূর্তির পরেই পথে নামে বিজেপি। গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার জন্য সংকল্প যাত্রার নাম দিয়ে সুবোধ মল্লিক স্কোয়ার থেকে রানি রাসমণি অ্যাভিনিউ পর্যন্ত মিছিল হয় গত ২ মে। পাল্টা, নাম না করে বিজেপিকে হারের কথা মনে করিয়ে, ট্যুইট করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তারপর ফের  বুধবার,  রাজ্যে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার দাবিতে বিজেপি মহামিছিল করবে। জেলায় জেলায় রয়েছে আয়োজন। বাঁকুড়ার লালবাজার হিন্দি হাইস্কুলের মাঠ থেকে বাঁকুড়া মাচানতলা পর্যন্ত মিছিল করবেন বিজেপি নেতা, কর্মীরা। থাকবেন কেন্দ্রীয় শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী সুভাষ সরকার ও বিজেপির সর্বভারতীয় সহ সভাপতি ও সাংসদ দিলীপ ঘোষ, বিষ্ণুপুরের বিজেপি সাংসদ সৌমিত্র খাঁ-সহ কর্মী, সমর্থকরা। রাজ্যে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার দাবিতে দুর্গাপুরের  কোকওভেন থানার সামনে থেকে শুরু হবে বিজেপির মিছিল।  মিছিলে যোগ দেবেন সুকান্ত মজুমদার, দুর্গাপুর পশ্চিমের বিধায়ক লক্ষ্ণণ ঘোড়ুই-সহ বিজেপি কর্মী, সমর্থকরা।রাজ্যে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার দাবিতে আজ হাওড়াতেও মিছিল করবে বিজেপি। বিকেলে মধ্য হাওড়ার কদমতলা বাস স্ট্যান্ড থেকে হাওড়া ময়দান পর্যন্ত মিছিল। উপস্থিত থাকবেন রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। 

বিজেপির অভিযোগ, গতবছর বিধানসভা নির্বাচনের পর যে হিংসার ঘটনা ঘটেছে, তা রাজ্যের গণতন্ত্রের ইতিহাসে কলঙ্ক।  শুভেন্দুর অভিযোগ, বহু বিজেপি কর্মী ও তাঁদের পরিবার বিধানসভা নির্বাচনের ফলঘোষণার দিন থেকে  রাজ্যে লাগাতার হিংসার শিকার হয়েছেন। আর তারই প্রতিবাদে মে মাসে জুড়ে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার কারণে একাধিক কর্মসূচি পালন করছে রাজ্য বিজেপি।