চীনের  মোবাইল নিষিদ্ধ জার্মানে, দুটি ব্র্যান্ডের বিরুদ্ধে মামলায় জয় নকিয়ার

চীনের  মোবাইল নিষিদ্ধ জার্মানে,  দুটি ব্র্যান্ডের বিরুদ্ধে মামলায় জয় নকিয়ার

আরোহী নিউজ ডেস্ক : ফোরজি এলটিই এবং ফাইভজি পেটেন্ট নিয়ে জার্মান আদালতের দ্বারস্থ হয়েছে ফিনল্যান্ডের স্মার্টফোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠান নকিয়া ও চীনের অপো। এই দুই সংস্থার মধ্যে ফাইভজি বাস্তবায়ন নিয়ে জোরদার লড়াই চলছে। চীনের সংবাদমাধ্যম গিজমোচাইনার রিপোর্ট অনুসারে, দুই সংস্থার মধ্যে পেটেন্ট নিয়ে আলোচনা ভেস্তে গেলে জার্মান আদালতে মামলাটি করা হয়৷
এই দুই সংস্থার বিরুদ্ধেই আদালতে জয় পেয়েছে Nokia। 2021 সালে এই দুই চিনা সংস্থার সঙ্গে আলোচনায় সমাধান না পেয়ে চারটি দেশে আইনি পদক্ষেপের সিদ্ধান্ত নিয়েছিল Nokia। আদালতের সিদ্ধান্তে জার্মানিতে Oppo ও OnePlus ফোন বিক্রি নিষিদ্ধ হয়েছে।

জার্মানির তিনটি আঞ্চলিক আদালতে অপোর বিরুদ্ধে নয়টি স্ট্যান্ডার্ড এসেনশিয়াল পেটেন্ট এবং পাঁচটি ইমপ্লিমেন্টেশন পেটেন্টের জন্য মামলা দায়ের করে নকিয়া। শনিবার দীর্ঘ সময় ধরে চলা এ মামলার রায় ঘোষণা করে জার্মান আদালত। জয়লাভ করে নকিয়া। তবে নকিয়ার এমন পদক্ষেপকে জঘন্য আচরণ বলে আখ্যা দেয় অপো।

জার্মানির ম্যানহাইম আঞ্চলিক আদালত অপোর দায়ের করা মামলা খারিজ করে দেয় এবং কোম্পানিটির লাইসেন্সের বৈধতা নিয়ে প্রশ্ন তুলে। এর দরুন অপো এবং ওয়ানপ্লাসের ফোন জার্মানির বাজারে নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়। অপো এবং ওয়ানপ্লাস চীনের একই মাদার কোম্পানির। আদালতের রায়ের পরিপ্রেক্ষিতে দুই সংস্থা কি পদক্ষেপ নেয় তাই এখন দেখার বিষয়।