শপথ গ্রহণে বিশেষ শাড়ি পরলেন রাষ্ট্রপতি দ্রৌপদী মুর্মু

শপথ গ্রহণে বিশেষ শাড়ি পরলেন রাষ্ট্রপতি দ্রৌপদী মুর্মু

ভারতের ১৫তম রাষ্ট্রপতি দ্রৌপদী মুর্মু শপথ গ্রহণের সময় সবুজ-লাল পাড়ের সাদা রঙের একটি সাঁওতালি শাড়ি পড়েছিলেন। শাড়িটি দেখতে নেহাতই সাদামাটা। কিন্তু এই শাড়ির বিশেষ বৈশিষ্ট্য রয়েছে তাই জন্যই বিশেষ দিনের জন্য দ্রৌপদী মুর্মু এই শাড়ি বেছে নিয়েছেন।

শাড়িটি নানা রঙের সুতো দিয়ে বোনা হয়েছে। লাল ও সবুজ গঙ্গা–যমুনা প্রকৃতির পাড়ের এই শাড়ির নীচের অংশে ছিল ত্রিকোণাকৃতি মোটিফ। মূলত ঝাড়খণ্ড রাজ্যে এই ধরনের শাড়ির বুনন হলেও পশ্চিমবঙ্গ, ওড়িষা, অসমেও এই ধরনের শাড়ির প্রচলন আছে।

আগে সাধারণত স্বদেশি মহিলা যোদ্ধাদের পরনে এই প্রকার শাড়ি থাকত। এই ধরনের শাড়ি ছিল মহিলাদের স্বাধীনতা চাওয়ার প্রতীক। সে সময় এসব শাড়ির ওপর থ্রি-বো ডিজাইন করা হত। এই প্রতীকের অর্থ ছিল নারীদের স্বাধীনতার আকাঙ্ক্ষা। তবে নতুন যুগে পরিবর্তনের সঙ্গে সঙ্গে সাঁওতালি শাড়িতেও ময়ূর, ফুল ও হাঁসের নকশা করা হচ্ছে। ঐতিহ্যবাহী এই শাড়ির চেহারা সময়ের সঙ্গে সঙ্গে এখন পাল্টে যাচ্ছে।

শপথ গ্রহণে বিশেষ শাড়ি পরলেন রাষ্ট্রপতি দ্রৌপদী মুর্মু 

ভারতের ১৫তম রাষ্ট্রপতি দ্রৌপদী মুর্মু শপথ গ্রহণের সময় সবুজ-লাল পাড়ের সাদা রঙের একটি সাঁওতালি শাড়ি পড়েছিলেন। শাড়িটি দেখতে নেহাতই সাদামাটা। কিন্তু এই শাড়ির বিশেষ বৈশিষ্ট্য রয়েছে তাই জন্যই বিশেষ দিনের জন্য দ্রৌপদী মুর্মু এই শাড়ি বেছে নিয়েছেন।


শাড়িটি নানা রঙের সুতো দিয়ে বোনা হয়েছে। লাল ও সবুজ গঙ্গা–যমুনা প্রকৃতির পাড়ের এই শাড়ির নীচের অংশে ছিল ত্রিকোণাকৃতি মোটিফ। মূলত ঝাড়খণ্ড রাজ্যে এই ধরনের শাড়ির বুনন হলেও পশ্চিমবঙ্গ, ওড়িষা, অসমেও এই ধরনের শাড়ির প্রচলন আছে।


আগে সাধারণত স্বদেশি মহিলা যোদ্ধাদের পরনে এই প্রকার শাড়ি থাকত। এই ধরনের শাড়ি ছিল মহিলাদের স্বাধীনতা চাওয়ার প্রতীক। সে সময় এসব শাড়ির ওপর থ্রি-বো ডিজাইন করা হত। এই প্রতীকের অর্থ ছিল নারীদের স্বাধীনতার আকাঙ্ক্ষা। তবে নতুন যুগে পরিবর্তনের সঙ্গে সঙ্গে সাঁওতালি শাড়িতেও ময়ূর, ফুল ও হাঁসের নকশা করা হচ্ছে। ঐতিহ্যবাহী এই শাড়ির চেহারা সময়ের সঙ্গে সঙ্গে এখন পাল্টে যাচ্ছে।