অবশেষে জয় পড়ুয়াদের, আন্দোলনের জেরে সিদ্ধান্ত বদল আলিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের 

অবশেষে জয় পড়ুয়াদের, আন্দোলনের জেরে সিদ্ধান্ত বদল আলিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের 

আরোহী নিউজ ডেস্ক :  অবশেষে জয় পড়ুয়াদের। লাগাতার আন্দোলনের জেরে পরীক্ষা পিছোল আলিয়া বিশ্ববিদ্যালয়। ২৭ মে থেকে পরীক্ষা হওয়ার কথা ছিল। এখন তা পিছিয়ে গিয়ে ৬ জুন থেকে শুরু হবে। বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের এই সিদ্ধান্তের কথা সোমবার এক বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে জানিয়েছে আলিয়া কর্তৃপক্ষ। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ২২ মে অ্যাকাডেমিক কাউন্সিলের বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

অনলাইন পরীক্ষার জেরে আন্দোলন চলছিল আলিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে। পড়ুয়াদের দাবি ছিল পরীক্ষা হবে অনলাইনে অথবা পিছোতে হবে পরীক্ষার দিন। অবশেষে নিজেদের সিধান্ত থেকে পিছু হটল বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। পড়ুয়াদের কথা অনুযায়ী পিছিয়ে দেওয়া হল পরীক্ষা। নয়া সূচি অনুযায়ী, পরীক্ষা শুরু হবে ৬ জুন এবং ১৭ জুন পর্যন্ত চলবে। পরীক্ষার বিস্তারিত রুটিন পরবর্তীতে সংশ্লিষ্ট বিভাগ থেকে জানানো হবে বলেও উল্লেখ করা হয়েছে ওই বিজ্ঞপ্তিতে। পরীক্ষায় ৪০ শতাংশ নম্বর থাকবে অ্যাসাইনমেন্টের জন্য। ২০ শতাংশ নম্বর থাকে ইন্টারনাল পরীক্ষায়। তবে বাকি ৪০ শতাংশ নম্বরের জন্য পরীক্ষা হবে অফলাইন মাধ্যমেই। 

আলিয়া বিশ্ববিদ্যালয় কর্তপক্ষের এই সিদ্ধান্তের পর আন্দোলন প্রত্যাহার করে নেন পড়ুয়ারা। উল্লেখ্য, সাম্প্রতিককালে রাজ্যে পড়ুয়াদের একটি অংশের মধ্যে অফলাইনে পরীক্ষা দেওয়ার ক্ষেত্রে বেশ অনীহা দেখা গিয়েছে। করোনা পরিস্থিতির কারণে, দীর্ঘদিন ধরে অনলাইনেই ক্লাস চলেছে। তবে এখন করোনার প্রকোপ কমতে ফের অফলাইন মাধ্যমে ফিরতে শুরু করেছে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলি। এই পরিস্থিতিতে স্কুল-কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়গুলি অফলাইন পরীক্ষার দিকও এগোতে শুরু করেছে। এমনকী কিছুদিন আগে উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষাও হয়েছে অফলাইনে। কিন্তু বড়দের ক্ষেত্রে পরীক্ষার সময় দেখা গিয়েছে, একাংশের পড়ুয়া অফলাইনে পরীক্ষা দিতে নারাজ। শুধু আলিয়া নয়, রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয়েও কিছুদিন আগে এমন বিক্ষোভ দেখা গিয়েছে। যাদবপুুর বিশ্ববিদ্যালয়ে আবার তৃণমূল ছাত্র পরিষদের তরফে পড়ুয়াদের মধ্যে অনলাইন নাকি অফলাইন – তা নিয়ে সার্ভেও করা হয়েছে।