পাক জঙ্গিদের মুক্তির দাবিতে টেক্সাসে বন্দুকবাজের হানা

পাক জঙ্গিদের মুক্তির দাবিতে টেক্সাসে বন্দুকবাজের হানা

আরোহী নিউজ ডেস্ক: পাক জঙ্গিদের মুক্তির দাবিতে টেক্সাসে বন্দুকবাজের হানা। মার্কিন নাগরিকদের পণবন্দি করল বন্দুকবাজ। ১০ ঘণ্টা লড়াইয়ের পরে পুলিশের গুলিতে খতম বন্দুকবাজ। বহু পাকিস্তানি জঙ্গি আমেরিকার জেলে বন্দি। অনেকেই আবার সাজাপ্রাপ্তও। আর ওই জেল বন্দিদের ছাড়াতে এবার টেক্সাসে নাগরিকদের পণবন্দি করল বন্দুকবাজ।

জানা গিয়েছে, শনিবার রাতে টেক্সাসের কোল্লেভিলে এলাকায় এক ব্যক্তি বোমা, বন্দুক নিয়ে ঢুকে পড়ে। অভিযোগ, মানুষের মধ্যে আতঙ্ক তৈরির উদ্দেশে ওই জঙ্গি প্রথমেই বেশ কয়েকটি বিস্ফোরণ ঘটান। এতে মানুষের মধ্যে আতঙ্ক তৈরি হয়। ফলে, প্রাণ বাঁচাতে কার্যত ছোটাছুটি-হুড়োহুড়ি পড়ে যায় বাসিন্দাদের মধ্যে। এই অবস্থায় সুযোগের সদ্ব্যবহার করে ওই বন্দুকবাজ চারজন মার্কিন নাগরিককে পণবন্দি করে। দাবি করে, আমেরিকার জেলে বন্দি পাক জঙ্গিদের অবিলম্বে মুক্তি দিতে হবে। মুক্তি না দিলে, পণবন্দিদের ধীরে ধীরে খতম করা হবে বলেও হুমকি দেয় ওই বন্দুকবাজ।

জঙ্গি মুক্তির দাবিতে বন্দুকবাজের হামলার খবর পেয়েই তৎপর হয় টেক্সাস পুলিশ। ওই বন্দুকবাজকে ঘিরে ফেলে প্রথমে আত্মসমর্পণের জন্য বলা হয়। কিন্তু বন্দুকবাজ আত্মসমর্পণে সম্মত হয়নি। এই অবস্থায় পুলিশের সঙ্গে গুলির লড়াই শুরু হয়ে যায়। পুলিশ জানিয়েছে, প্রায় দশ ঘণ্টা ধরে পুলিশ-বন্দুকবাজের লড়াই চলে। এক সময় বন্দুকবাজের তরফে গুলি ছোঁড়া বন্ধ হয়ে যায়। তল্লাশি অভিযানে নেমে ওই বন্দুকবাজের দেহ উদ্ধার করে মার্কিন পুলিশ। তবে, বন্দুকবাজের পরিচয় প্রকাশ্যে আনতে চায়নি প্রশাসন। এমন বন্দুকবাজ হানার পরে জঙ্গি হানার সম্ভাবনা ফের প্রবল হয়েছে। ফলে, আমেরিকা জুড়ে নিরাপত্তা ঢেলে সাজানো হয়েছে।