দলীয় মুখপত্রে ফের কংগ্রেসকে কটাক্ষ তৃণমূলের

দলীয় মুখপত্রে ফের কংগ্রেসকে কটাক্ষ তৃণমূলের

আরোহী নিউজ ডেস্ক: সংসদের অন্দরে কংগ্রেসের সঙ্গে সমন্বয় সাধন করে চললেও হাত শিবিরের সঙ্গে তৃণমূলের দূরত্ব ক্রমেই বাড়ছে। সোনিয়া-রাহুল গান্ধী সহ বিরোধী দলগুলির প্রধানদের সঙ্গেও সাক্ষাৎ করেছিলেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তবে এরপর থেকেই কংগ্রেসের বিরুদ্ধে বারবার সরব হয়েছে ঘাসফুল শিবির। ফের দলীয় মুখপত্রে কংগ্রেসকে তোপ তৃণমূলের।

বুধবার তৃণমূলের মুখপত্রে কংগ্রেসকে ‘রণক্লান্ত’ বলে কটাক্ষ করা হয়। সম্পাদকীয়তে লেখা হয়, “বিজেপিকে প্রতিরোধ করার কথা ছিল কংগ্রেসের। তারাই ছিল কেন্দ্রের বিরোধী দল। কিন্তু কংগ্রেস উদাসীন, রণক্লান্ত, ভারাক্রান্ত, অন্তর্দ্বন্দ আর দলীয় জটিলতায় বিদীর্ণ। যেন ব্যাটন বইতে অপারগ। কিন্তু সময় পড়ে থাকে না, কাউকে এগিয়ে আসতেই হয়। তৃণমূল কংগ্রেস সেই দায়িত্ব পালন করবে। তারাই আসল কংগ্রেস। মানুষকে বোঝাবে।” তবে সকলকে সঙ্গে নিয়েই তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় চলতে চান বলেই লেখা হয়েছে শেষ লাইনে।

প্রসঙ্গত, মঙ্গলবার সংসদীয় দলের বৈঠকে তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদকের নির্দেশ, বাংলার ইস্যু সংসদে আরও বেশি করে তুলতে হবে। দলের সাংগঠনিক সম্প্রসারণ মাথায় রাখতে হবে সাংসদের। সংসদে একলা চলো নীতিতেই চলবে তৃণমূল। এরপরই দলীয় বৈঠকে অনুপস্থিত সাংসদদের শোকজের সিদ্ধান্ত নেয় তৃণমূল কংগ্রেস।