আরও আধুনিক হচ্ছে ক্রেতা সুরক্ষা দফতর, দ্রুত মিলবে পরিষেবা

আরও আধুনিক হচ্ছে ক্রেতা সুরক্ষা দফতর, দ্রুত মিলবে পরিষেবা

আরোহী নিউজ ডেস্ক : মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে রাজ্যের সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলির আচার্য করার বিল এনেছে রাজ্য সরকার। এমনকী সেই বিল ইতিমধ্যেই বিধানসভায় পাশও হয়ে গিয়েছে। মঙ্গলবার তা পাঠানো হয়েছে রাজভবনে। এই বিল মেনে নিতে পারেননি বিজেপি বিধায়করা। তাই আগেই হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। আজ বিধানসভায় নিন্দাপ্রস্তাব আনে তৃণমূল কংগ্রেস। শত হই হট্টগোলের মধ্যেও এদিন বিধানসভায় প্রশ্ন উত্তর পর্ব চলে  রোজকার মত। 

বিধানসভায় উদয়ন গুহ প্রশ্ন রাখেন ক্রেতা সুরক্ষা দপ্তরের মন্ত্রীর কাছে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে মানুষের সঙ্গে প্রতারনা আটকাতে কি ব্যাবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে  ও সচেতনতা বাড়াতে কি ব্যাবস্থা নেওয়া হচ্ছে ?  উত্তরে ক্রেতা সুরক্ষা দফতরের ভারপ্রাপ্ত মন্ত্রী মানস রঞ্জন ভুঁইয়া বলেন সরকার এবিষয়ে বিশেষঞ্জ টিমের পরামর্শ নিচ্ছেন এবং সীম ডিস্টিবিউশন সহ বেশ কীছু বিষয়ে সতর্কতা অবলম্বন করার জন্য সার্ভিস প্রোভাইডারকে নির্দেশ সহ বেশ কিছু ব্যাবস্থা গ্রহন করা হচ্ছে।বিষয়টির উপর নজর রাখা হচ্ছে বলে দাবি মন্ত্রী মানস রঞ্জন ভুঁইয়া।

অন্যদিকে নারী সুরক্ষা দফতরের ভারপ্রাপ্ত মন্ত্রী শশী পাঁজা বুধবার বিধানসভায় জানান ট্রান্সজেন্ডারদের উন্নয়নের জন্য একটা বোর্ড তৈরী হয়েছে। কোভিডের আগে কেন্দ্রীয় সরকারের একটা অ্যাপ ছিল। কোভিডের সময় তাদের হাতে রেশন পৌঁছে দেওয়া হয়েছিল সরকারের তরফে ।তাদের ভ্যাকশিনের ব্যবস্থাও করেছিলেন মন্ত্রী শশী পাঁজা ও রাজ্য সরকার । সুতরাং রূপান্তরকামীদের জন্য আরও একধাপ এগিয়ে রাজ্য সরকার নতুন উদ্যোগের তাদেরকে সমাজের সামনে প্রতিষ্ঠা করার ভাবনা গ্রহণ করছে বলে এদিন বিধানসভায় জানান শশী পাঁজা।