কার্টুনিস্ট তকমা পছন্দ করতেন না নারায়ণ দেবনাথ, স্মৃতিচারণায় দেব সাহিত্য কুটির 

কার্টুনিস্ট তকমা পছন্দ করতেন না নারায়ণ দেবনাথ, স্মৃতিচারণায় দেব সাহিত্য কুটির 

জয়নী : চমৎকার বাড়ি। আক্ষরিক অর্থেই এখানে খাতায় কলমে চমৎকার করে চলেন লেখকরা। সাহিত্যিক নারায়ণ দেবনাথের পথচলা শুরু এই বাড়ির দোতলার ঘর থেকে। রং তুলির টানে এখানেই তৈরি হয়েছে আমাদের শৈশব । 

সেসময় বাংলা কমিকস বলতে ছিল একমাত্র প্রফুল্লচন্দ্র লাহিড়ি বা কাফি খাঁ'র আঁকা শেয়াল পণ্ডিত। ইলাস্ট্রেশন করতে আসা তরুণ শিল্পীকেই দেব সাহিত্য কুটিরের সম্পাদকমণ্ডলীর উৎসাহ দেয় নতুন কমিক্স লিখতে। প্রকাশিত হয় হাঁদা ভোঁদা। 

দেব সাহিত্য কুটিরের বর্তমান সম্পাদিকা হিসাবে নারায়ণ দেবনাথকে অনেকটাই কাছ থেকে দেখেছেন রূপা মজুমদার। জানালেন, কাজের ক্ষেত্রে পেশাদারিত্বের অভাব ছিল না সাহিত্যিকের মধ্যে। সম্পাদক হিসাবে কখনও তাগাদা দিতে হয় তাকে। 

তবে একেবারেই পছন্দ করতেন না কার্টুনিস্ট আখ্যা। শুধুমাত্র কার্টুন বা কমিক্স নয়, এক একটা কমিক্স তার সাহিত্য রচনার নিদর্শন। বহুবার শুনতে হয়েছে কটুক্তি। খ্যাতনামা সাহিত্যিকদের কাছেও শুনতে হয়েছে কমিক্স কখনো সাহিত্য হয়ে উঠতে পারে না। শুনেছেন শুধুই, উত্তর দেননি। উত্তর দিয়েছে তাঁর কলম। 

অমরত্বের পথে যাত্রা করেছেন সাহিত্যিক নারায়ণ দেবনাথ। আপামর বাঙালির জন্য রেখে গিয়েছেন নন্টে ফন্টে, হাঁদা ভোঁদা, বাহাদুর বেড়ালদের দুষ্টুমিতে মোড়া ছেলেবেলা।