কাটমান্ডুর নাইট ক্লাবে রাহুল গান্ধী! ভিডিও ঘিরে রাজনৈতিক তরজা

কাটমান্ডুর নাইট ক্লাবে রাহুল গান্ধী! ভিডিও ঘিরে রাজনৈতিক তরজা

আরোহী নিউজ ডেস্ক: কাটমান্ডুর নাইট ক্লাবে রাহুল গান্ধী! ভিডিও প্রকাশ্যে আসতেই রাজনৈতিক মহলে শুরু হয়েছে শোরগোল। ট্যুইট করে কংগ্রেসকে খোঁচা বিজেপির। নেপালে এক আত্মীয় বিয়েতে আমন্ত্রিত হয়ে  গিয়েছিলেন রাহুল। পাল্টা সাফাই কংগ্রেসের। বিনা আমন্ত্রণে প্রাক্তন পাক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফের জন্মদিনে মোদির কেক কাটা প্রসঙ্গ তুলে ধরে কটাক্ষ করতে ছাড়ল না সোনিয়ার দল।

ভিও- চলছে গান-বাজনা। চারিদিকে আলোর ঝলকানিও। আর তারই মধ্যে ভেসে উঠল কংগ্রেস সাংসদ রাহুল গান্ধীর মুখ। একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমের দাবি, সেটা নাকি কাঠমান্ডুর একটি নাইট ক্লাব। মঙ্গলবার এই ভিডিও প্রকাশ্যে আসতেই পড়ে যায় শোরগোল। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ইউরোপ সফর নিয়ে সোমবার কড়া সমালোচনা করেছিল কংগ্রেস। দেশের সঙ্কটময়ের সময় সাহেব বিদেশ ভ্রমণে যাচ্ছেন বলে কটাক্ষ করা হয়। রাহুলের নাইট ক্লাবের ভিডিও-র পাল্টা দিতে আসরে নামে বিজেপি। সমালোচনা করে ট্যুইট করেন বিজেপির আইটি সেলের অমিত মালব্য। ট্যুইটে মালব্য লেখেন, যখন মু্ম্বই অবরুদ্ধ তখন রাহুল গান্ধী ছিলেন নাইটক্লাবে। যখন কংগ্রেসে একের পর এক বিস্ফোরণ ঘটছে, তখন দেখা গেল নাইট ক্লাবে। এ ব্যাপারে তিনি ধারাবাহিক। এরপরই চাপে পড়ে সাফাই দিতে আসরে নামে কংগ্রস মুখপাত্র রণদীপ সিং সুরজেওয়ালা। নেপালে এক বন্ধুর আমন্ত্রণে একটি বিবাহ অনুষ্ঠানে রাহুল গান্ধী গিয়েছিলেন বলে জানান তিনি। তুলে ধরেন বিনা আমন্ত্রণে প্রাক্তন পাক প্রধানমন্ত্রীর নওয়াজ শরিফের জন্মদিনে অনুষ্ঠানে নরেন্দ্র মোদির যাওয়ার প্রসঙ্গও। তা নিয়ে বিজেপিকে কটাক্ষ করতে ছাড়েন নি কংগ্রেস মুখপাত্র।