শাহরুখের দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে সৈয়দ মুস্তাক আলি চ্যাম্পিয়ন তামিলনাড়ু

শাহরুখের দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে সৈয়দ মুস্তাক আলি চ্যাম্পিয়ন তামিলনাড়ু

আরোহী নিউজ ডেস্ক:  শেষ বলে ছয় মেরে তামিলনাড়ুকে সৈয়দ মুস্তাক আলি চ্যাম্পিয়ন করলেন শাহরুখ খান। আর শাহরুখের ব্যাটিং দেখে মুগ্ধ ক্যাপ্টেনকূল মাহেন্দ্র সিং ধোনি। টিভিতেই পুরো ব্যাপারটাই দেখলেন ধোনি। সেই ছবি পোস্ট করেছে চেন্নাই সুপার কিংস। অতীতেও ঘরোয়া ক্রিকেট তামিলনাড়ুকে বহু ম্যাচে জিতিয়েছেন শাহরুখ। সৈয়দ মুস্তাক আলি ট্রফিতেও তার ব্যতিক্রম নয়। শেষ ওভারে জেতার জন্য দরকার ছিল ১৬ রান। প্রথম পাঁচ বলে ১১ রান উঠেছিল। শেষ বলে দরকার ছিল পাঁচ রান। সেই সময় প্রতীক জৈনের শেষ বলে ছক্কা মেরে তামিলনাড়ুকে জেতান শাহরুখ। ম্যাচ শেষ করার দক্ষতার কারণে অনেকেই শাহরুখকে ইতিমধ্যেই ধোনির সঙ্গে তুলনা করতে শুরু করেছেন।

২০১৮ সাল থেকে ধরলে মুস্তাক আলি টি-টোয়েন্টিতে দাপট দেখিয়ে আসছে কর্নাটক আর তামিলনাড়ু। ২০১৮ ও ২০১৯ সালে পর পর দু’বার চ্যাম্পিয়ন হয়েছেন মণীশ পাণ্ডে, করুণ নায়াররা। তার মধ্যে শেষবার তামিলনাড়ুকেই হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল কর্নাটক। শেষ দু’বার আবার দাপট দেখাচ্ছেন বিজয় শঙ্করের টিম। এই হিসেব ধরলে ভারতের টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে সবচেয়ে শক্তিশালী এই দুই রাজ্য। চার বারের মধ্যে তিনবার করে ফাইনালে উঠেছে তারা। আগে ব্যাট করে কর্নাটক তুলেছিল ১৫১-৭। অভিনব মনোহর ৩৭ বলে ৪৬ করেন। প্রবীণ দুবের ২৫ বলে ৩৩। ৭ বলে ১৮ জগদীশ সুচিথের। শুরু থেকে ভেল্কি দেখাতে শুরু করেন কিশোর। কর্নাটকের দুই ওপেনার রোহন কদম ও মণীশকে দ্রুত ড্রেসিংরুমে পাঠান। বিআর শরথকেও ১৬ রানে আউট করেন তিনি। ৪ ওভার বল করে মাত্র ১২ রান দিয়ে কিশোর নিয়েছেন ৩ উইকেট। ফাইনালে সেই ধাক্কাটাই সামলাতে পারেননি মণীশ-করুণরা। টি নটরাজন ৪৪ রান দিয়ে নিয়েছেন ১ উইকেট।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে তামিলনাড়ুর হরি নিশান্ত ২৩ করে ফেরেন। নারায়ণ জগদীশন অবশ্য ৪১ করে যান। বাকিটা শাহরুখের বিস্ফোরণ। শাহরুখ যখন ব্যাট করতে আসেন, তখন স্কোরবোর্ডে ১৭.১ ওভারে তামিলনাড়ুর ১১৬-৫। ট্রফি জিততে হলে ১৭ বলে ৩৫ রান দরকার। সেখান থেকে একাই ১৫ বলে ৩৩ করেন তিনি। ১টা চার ও ৩টে ছয় মেরে খেলা জিতিয়ে দেন। শেষ ৬ বলে তামিলনাড়ুর দরকার ছিল ১৪ রান। ৫ বলে ১১ তুলে ফেলেন কিশোর-শাহরুখ জুটি। শেষ বলে জেতার জন্য দরকার ছিল ৩ রান। প্রতীক জৈনকে বিশাল ৬ মারেন শাহরুখ। ১৫৩ তুলে টানা দ্বিতীয়বার মুস্তাক আলি জয় তামিলনাড়ুর।