যোগীরাজ্যে বিজেপির জোর ধাক্কা, দলত্যাগ করলেন ১ মন্ত্রী সহ ৫

যোগীরাজ্যে বিজেপির জোর ধাক্কা, দলত্যাগ করলেন ১ মন্ত্রী সহ ৫

আরোহী নিউজ ডেস্ক : যোগীরাজ্যে বিজেপিতে বড় ধাক্কা। যদিও প্রথম ধাক্কাটা দিয়েছিল ভোটপূর্ব সমীক্ষা। সেসময় সংবাদ মাধ্যমগুলোর করা সমীক্ষায় দেখা গিয়েছিল বিধানসভা ভোটে অনেকটাই এগিয়ে রয়েছে অখিলেশের সমাজবাদী পার্টি। এবার ধাক্কাটা সোজা লাগলো উত্তরপ্রদেশের মন্ত্রী সভায়। বিজেপি ছেড়ে সমাজবাদী পার্টিতে যোগ দিলেন মন্ত্রী স্বামী প্রসাদ মৌর্য। তাঁর সঙ্গে দল ছাড়লেন আরও তিন বিধায়ক। এরপরেই বিপাকে পড়েন যোগী আদিত্যনাথ সরকার।

পাঁচ বারের বিধায়ক স্বামী প্রসাদ মৌর্য পিছিয়ে পড়া শ্রেণীর (‌ওবিসি)‌ অন্যতম মুখ। তিনি বিজেপি ছাড়ার কথা ঘোষণা করতেই বিধায়ক রোশন লাল বর্মা, ব্রিজেশ প্রজাপতি ও ভগবতী সাগরও একই পথে হাঁটেন। রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা মতে, সদ্য শুরু হওয়া এই দলবদলের পথে হাঁটতে পারেন আরও অনেক বিজেপি বিধায়কই। কারণ উত্তরপ্রদেশে, বিশেষত ওবিসি নেতাদের মধ্যে স্বামী প্রসাদের প্রভাব দারুণ। আর এ হেন জনপ্রিয় নেতার সপা যাত্রা বিজেপি–র ভোটব্যাংকেও যে যথেষ্ট প্রভাব ফেলবে, তা আর বলার অবকাশ রাখে না। ওবিসি ভোটের একটা বড় অংশই চলে যেতে পারে সপা–র কাছে।

প্রসঙ্গত স্বামী প্রসাদের দল বদলের ইতিহাস পুরনো। ২০১৬ সালে তিনি যোগ দেন বিজেপি–তে। তার আগে তিনি ছিলেন মায়াবতীর বহুজন সমাজবাদী পার্টিতে। রোশন, ব্রিজেশ, ভগবতীও একই ভাবে বসপা ছেড়ে বিজেপি–তে যোগ দিয়েছিলেন।  বিধায়ক পদেও বসেছিলেন। সেসময়ও স্বামী প্রসাদের পিছু নিয়ে বিজেপিতে যোগ দিয়েছিলেন ওই ৩ দলবদলু নেতা।

বিজেপি ছাড়ার কারণ হিসেবে স্বামী প্রসাদ ইস্তফা পত্রে জানিয়েছেন, ‘‌মতামত ভিন্ন থাকলেও যোগী আদিত্যনাথের মন্ত্রিসভায় মন দিয়ে কাজ করে গিয়েছি। কিন্তু ওবিসি, দলিত, কৃষক, বেকার, ছোট ব্যবসায়ীদের লাগাতার নিপীড়নের জন্য দল ছাড়ছি।’‌ তাঁর দলত্যাগে বিজেপির ধাক্কা লাগার প্রসঙ্গে  স্বামী প্রসাদ বললেন, ২০২২ বিধানসভা নির্বাচনের পর দেখা যাবে। 

স্বামী প্রসাদের সঙ্গে ছবি দিয়ে টুইটারে তাঁকে স্বাগত জানিয়েছেন অখিলেশ। লিখেছেন, সামাজিক ন্যায়ের জন্য অক্লান্ত খেটেছেন এই নেতা। তবে স্বামী প্রসাদকে ছাড়তে যে বিজেপি খুব একটা রাজি ছিল না, বোঝাই গিয়েছে। উপমুখ্যমন্ত্রী কেশব প্রসাদ মৌর্য টুইটারে লিখেছেন, স্বামী প্রসাদ কী কারণে দল ছেড়েছে, তিনি জানেন না। তবে এই বিষয়ে কথা বলে মিটিয়ে নেওয়া ভালো। উত্তরপ্রদেশে অখিলেশের হয়ে প্রচার করেছেন এনসিপি নেতা শারদ পাওয়ার। তাঁর মতে, স্বামীর প্রস্থানে ভুগবে বিজেপি।