শীতের মরসুমে আপনার মনকে সতেজ করবে যে দুটি স্থান

শীতের মরসুমে আপনার মনকে সতেজ করবে যে দুটি স্থান

আরোহী নিউজ ডেস্ক: ভ্রমণের নেশা যেন বাঙালির সাথে ওতোপ্রোতোভাবে জড়িত। বাঙালি মানেই, ভ্রমণপিয়াসী মানুষ। প্রকৃতির অপরূপ সৌন্দর্য উপভোগ করতে এবং প্রকৃতির মাঝে জীবনের অর্থ খুঁজে নিতে আমরা বরাবরই ভালবাসি। ইতিমধ্যেই শীতের আমেজ শুরু হয়ে গিয়েছে। আর শীত এলেই ভ্রমণের নেশা যেন আরও বেড়ে যায়! আর তাই কলকাতা থেকে ১০০ কিলোমিটার দূরত্বের মধ্যে অপূর্ব দুটি স্থানের কথা আজ পাঠকদের জন্য রইলো। 

১. পূর্ব মেদিনীপুর জেলার রূপনারায়ণ নদীর তীর ঘেঁষে গড়ে ওঠা শহর কোলাঘাট। কলকাতা থেকে এই শহরটির দূরত্ব মাত্র ৭৫ কিলোমিটার প্রায়। নদীর তীর ঘেঁষে গড়ে ওঠা ঝাউবনের সারিতে বিভিন্ন ছোট ছোট পিকনিক স্পট গড়ে উঠেছে। বছরের বিভিন্ন সময়ে, ছুটির দিনগুলোতে ভ্রমণপ্রিয় মানুষ তাই ছুটে আসে এই স্থানটিতে। উল্লেখ্য, কোলাঘাট রাজ্যের অন্যতম বড় শহর এই কোলাঘাট। শহরটি রূপনারায়ণ নদী ছাড়াও ইলিশ মাছ ও ফুলের জন্য ব্যাপক বিখ্যাত। 

ভ্রমণের আদর্শ সময় - অক্টোবর থেকে ফেব্রুয়ারি মাস।

থাকার স্থান - হোটেল সোনার বাংলা, শের-ই-পাঞ্জাব ধাবা।

২. কলকাতা থেকে মাত্র ৫৫ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত ডায়মন্ড হারবারের একটি ছোট্ট শহর হল রায়চক। জানা যায়, অতীতে এখানে একটি দুর্গ ছিল যা বর্তমানে ধ্বংসাবশেষ প্রায়। বর্তমানে রেডিসন দুর্গকে নতুন করে ঢেলে সাজানো হয়েছে। পুনর্নির্মাণের পর এটি এখন একটি পাঁচ তারা হোটেল। পার্শ্ববর্তী নুরপুর জেটি বা রায়চক জেটি থেকে নদী বক্ষে বেড়াতে পারবেন৷ এখান থেকে পূর্ব মেদিনীপুর জেলার কুকড়াহাটি বা হাওড়া জেলার গাদিয়াড়া যাওয়ার জন্য অনায়াসে নদী তীরবর্তী ফেরির সুবিধা পাবেন।

জেটি করে ভ্রমণের খরচ পড়বে ৩০ মিনিটের জন্য ১০ টাকা। গঙ্গাবক্ষে ভ্রমণ করার সময় শীতল হাওয়া নিঃসন্দেহে আপনার জীবনে এক অদ্ভুত ছন্দের সৃষ্টি করবে। হোটেলটি বেশ ব্যয়বহুল। তাই সামর্থ্য থাকলে অন্তত একবার দু'দিনের ছোট ট্যুরের জন্য এখানে গিয়ে ঘুরে আসতে পারেন। ক্রুজ ভাড়া করে গঙ্গাবক্ষে নয়নাভিরাম সৌন্দর্য উপভোগ করতে পারেন। তনে তা বেশ ব্যয়বহুল।