ব্রহ্মপুত্রের তলায় তৈরি হবে জোড়া টানেল! একইসঙ্গে যাবে গাড়ি ও ট্রেন

ব্রহ্মপুত্রের নিচে এই টানেল হবে প্রায় ১০ কিলোমিটার লম্বা

ব্রহ্মপুত্রের তলায় তৈরি হবে জোড়া টানেল! একইসঙ্গে যাবে গাড়ি ও ট্রেন

আরোহী নিউজডেস্ক: গঙ্গার তলা দিয়ে মেট্রোর দৌড় এখন শুধু সময়ের অপেক্ষা। খুব শীঘ্রই শুরু হতে পারে মহড়া দৌড়। এটাই ভারতে প্রথম কোনও নদীর তলায় গণ পরিবহন টানেল বা সুড়ঙ্গ। এবার দ্বিতীয় এরকম টানেল তৈরির পরিকল্পনা হয়ে গেল অসমে ব্রহ্মপুত্র নদের নীচে। সূত্রের খবর সব কিছু ঠিক থাকলে ব্রহ্মপুত্র নদের নিচে গড়ে উঠবে দেশের প্রথম ‘Underwater Road-Rail Tunnel’। অসম সরকার ইতিমধ্যেই এই প্রকল্পের প্রস্তাব কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে জমা দিয়েছে। প্রকল্পের খরচ ধরা হয়েছে প্রায় ৭,০০০ কোটি টাকা। অসমের মুখ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্ব শর্মা জানিয়েছেন, কেন্দ্র তাঁদের এই প্রস্তাব গুরুত্ব দিয়ে দেখছে। তাঁর আশা, এই টানেল গড়ার জন্য প্রয়োজনীয় অনুমোদন দ্রুতই দিয়ে দেবে কেন্দ্রীয় সরকার।

অসম সরকারের জমা দেওয়া প্রস্তাব অনুযায়ী ব্রহ্মপুত্র নদের নিচে তিনটি টানেল তৈরি করার পরিকল্পনা হয়েছে। একটি সাধারণ যানবাহন, অন্যটি দিয়ে যাবে ট্রেন। এবং তৃতীয় টানেল থাকবে কোনও রকম বিপদকালীন (এমার্জেন্সি) পরিস্থিতির জন্য। গোটা প্রকল্পের খরচ ধরা হচ্ছে প্রায় সাত হাজার কোটি টাকা। সূত্রের খবর, ওই টানেল করা হবে নগাঁও এলাকা থেকে। সেখানের কালিবর চা বাগান থেকে জামুগুড়ি পর্যন্ত ওই টানেল করার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে। এই ধরণের টানেল ভারতে প্রথম, আর কাজ সম্পন্ন হলে গুয়াহাটির বাসিন্দা এবং পর্যটকদের যাতায়াতে অনেক উন্নতি হবে বলেই দাবি করছে অসমের বিজেপি সরকার।

জানা গিয়েছে, ব্রহ্মপুত্রের নিচে এই টানেল হবে প্রায় ১০ কিলোমিটার লম্বা। এটি তৈরি হবে রেল মন্ত্রক, কেন্দ্রীয় সড়ক পরিবহন মন্ত্রক এবং বর্ডার রোডস অর্গানাইজেশনের (বিআরও) অধীনে। সূত্রের খবর, জাতীয় নিরাপত্তার স্বার্থে এই রেল-রোড টানেল খুবই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিতে চলেছে। কারণ এই টানেল হলে অসমের গুয়াহাটি থেকে অরুণাচলের তাওয়াং ও চিন সীমান্ত পর্যন্ত পৌঁছনোর পথ আরও সহজ হবে। তাই ভারতের নিরাপত্তার কথা ভেবে কেন্দ্রীয় সরকার দ্রুত এই প্রকল্পের প্রাথমিক অনুমোদন দিতে পারে। তবে ছড়ান্ত অনুমোদন দেওয়ার আগে সব দিক খুঁটিয়ে দেখে নিতে চায় মোদি সরকার। আর যদি এই প্রকল্পের কাজ শুরু হয়, তবে এটিই হবে ভারতের প্রথম রেল-রোড আন্ডার ওয়াটার টানেল।