শীতেও সুস্থ থাকতে চান? নিয়মিত খান এই সবজি গুলি

শীতেও সুস্থ থাকতে চান? নিয়মিত খান এই সবজি গুলি

আরোহী নিউজ ডেস্ক : শীত একেবারে দোরগোড়ায়। আর এই সময় বাজারে নানা ধরনের সবজি পাওয়া যায়। আবার বাজারে উঠে নতুন নতুন সব সবজি। তাই শীতে শরীরের প্রয়োজনীয় পুষ্টি মেটাতে বিভিন্ন সবজি খাওয়া উচিত। কারণ শাক সবজিতে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট রয়েছে। তাছাড়া এই সবজিতে প্রয়োজনীয় ভিটামিন ও খনিজ উপাদান থাকে। তাই এ ধরনের সবজিগুলো বুঝে বা জেনে খেলে শীতকালে সুস্থ থাকতে পারবেন। চলুন জেনে নেওয়া যাক শীতকালে কোন কোন সবজি খাওয়া উচিত।  

গাজর : 

গাজরে রয়েছে দুই ধরনের ভিটামিন। যেগুলো ওজন কমানোর জন্য খুবই উপকারী। সেই সঙ্গে শীতকালে আমাদের ত্বক কুঁচকে ও ফেটে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে। কারণ গাজরে ক্যারোটিনয়েড উপাদান রয়েছে। যা শরীরে অ্যান্টি অক্সিডেন্ট হিসেবে কাজ করে। আর এ ক্যারোটিনয়েড আমাদের শরীরে বয়সের ছাপ দূর করতে সাহায্য করে। তাই শীতকালে গাজর খেতে পারলে ত্বকের কুচকানো ভাব অনেকটাই কমে যাবে। শীতে ত্বক কালো দেখানো ভাবও থাকবে না।

পালং শাক : 

পালং হলো শীতের শাক। এতে প্রচুর পুষ্টি উপাদান রয়েছে। এছাড়াও পালং শাকে ভিটামিন ও মিনারেলস রয়েছে আর ক্যালরি খুবই কম রয়েছে।
তাই যাদের পেটে চর্বি বেশি বা ওজন দ্রুত বৃদ্ধি পায়, তারা এ সময় প্রচুর পরিমাণে পালং শাক খাবেন। কারণ পালং শাক ক্যান্সার প্রতিরোধী হিসেবে কাজ করে। এটি অ্যান্টি অক্সিডেন্ট হিসেবেও কাজ করে থাকে।

মুলো : 

মুলো লিভার ও পাকস্থলী দুটোকেই পরিষ্কার ও টক্সিনমুক্ত করে থাকে। এতে প্রচুর পরিমাণে ফাইবার রয়েছে। সব থেকে ভালো হলো ভিটামিন সি যুক্ত সাদা মুলা।  আর এ ধরনের সাদা মুলো শীতকালেই বেশি পরিমাণে পাওয়া যায়। এটি রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাকে বৃদ্ধি করে। এছাড়াও মুলোতে রয়েছে সালফার। এ উপাদানটিও শরীরের জন্য উপকারী।

বিট : 

শীতকালীন এই সবজিতে ক্যালোরির মাত্রা খুবই কম। বিট শরীরকে টক্সিনমুক্ত রাখতে সাহায্য করে। এতে পটাশিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম, আয়রন, ভিটামিন বি, ভিটামিন এ, ভিটামিন সি ও নাইট্রেট রয়েছে। তাই বিট খাওয়া খুবই জরুরি। যাদের মুখে ব্রণ আছে বা তৈলাক্ত ত্বক তাদের জন্য বিট খাওয়া খুবই উপকারী।