তীব্র গরমের হাত থেকে বাঁচতে কি কি করবেন ? জানুন এখনই

তীব্র গরমের হাত থেকে বাঁচতে  কি কি করবেন ? জানুন এখনই

আরোহী নিউজ ডেস্ক : ভরা বৈশাখেও উধাও কালবৈশাখী, আর সেটাই হল 'কাল'। ২ দিনে তাপমাত্রার পারদ ছুঁয়েছে  ৪০-এর কোঠা ! দোসর তাপপ্রবাহ ! পাশাপাশি বিগত কয়েকদিন ধরেই রাজ্যের একাধিক জেলায় ঝড় বৃষ্টি ও কালবৈশাখীর পূর্বাভাস দিয়েছিল আবহাওয়া দফতর। কিন্তু দক্ষিণবঙ্গের জেলাগুলিতে কালবৈশাখী তো দূরের কথা, দেখা মেলেনি এক ফোঁটা বৃষ্টির।পাল্টা আরও বাড়ছে তাপমাত্রা।তীব্র দাবদাহে পুড়ছে বাংলা।

হাওয়া অফিসের পূর্বাভাস ,আগামী কয়েকদিনও পাল্লা দিয়ে বাড়বে গরমের দাপট। আগামী কয়েকদিন গোটা রাজ্যেই তাপপ্রবাহের সতর্কতাও  জারি করা হয়েছে। ফলে আগামী কয়েকদিন নাজেহাল অবস্থা জারি থাকবে বঙ্গে। ফলে সকলকেই সচেতন থাকার বার্তা দিচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা। বিশেষত অফিস যাত্রীদের। বিশেষজ্ঞদের মতে তীব্র গরমের দাবদাহে দেখা দিতে পারে সানস্ট্রোক থেকে শুরু করে একাধিক সমস্যা। ফলে এই পরিস্থিতি থেকে বাঁচতে মেনে চলুন কিছু পদ্ধতি।  

প্রথম, প্রতিদিন কমপক্ষে প্রায় ৩ লিটার জল পান করুন। কারণ গরমের জেরে শরীর অনেকটা জল বেরিয়ে যায় ফলে পর্যাপ্ত জল পান করে সেই জলের ঘটতি মেটাতে হবে।  

দ্বিতীয়, বাইরে বেরোলে হালকা সুতির পোশাক পরুন। তাপপ্রবাহ থেকে বাঁচতে মুখে ভিজে রুমাল ব্যবহার করুন।  আর অবশ্যই রোদে বেরোলে ছাতা বা টুপি মাস্ট।  

তৃতীয়, এই গরমে যত পারবেন সহজপাচ্য খাবার খান। যত পারবেন বাড়িতে তৈরি খাবার খান। তেল মশলা জাতীয় খাবার এড়িয়ে চলুন।  

চতুর্থ, গরম থেকে এসিতে ঢুকবেন না। এসির তাপমাত্রা একদম কম নয়। 

পঞ্চম, এই গরমে মদ্যপান একদম নয়।  মদ্যপানের  ফলে শরীর এমনিতেই ডিহাইড্রেটেড  হয়ে যায়। ফলে এই গরমে মদ্যপান এড়িয়ে চলুন।  

ষষ্ঠ, যতটা  সম্ভব রোদ্দুর এড়িয়ে চলুন। সকাল ১০টা থেকে বিকাল ৪ টে পর্যন্ত বাইরে না বেরোনোই ভাল।  জরুরী কাজ ছাড়া বাইরে না।  যতটা সম্ভব বাড়িতে থাকার চেষ্টা করুন।  

সপ্তম, বাইরে বেরিয়ে অসুস্থ বোধ করলে সরাসরি চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।