সংসদীয় বৈঠকে অনুপস্থিত, মিমি-নুসরতকে শোকজের সিদ্ধান্ত তৃণমূলের

সংসদীয় বৈঠকে অনুপস্থিত, মিমি-নুসরতকে শোকজের সিদ্ধান্ত তৃণমূলের

আরোহী নিউজ ডেস্ক: দলীয় সাংসদদের নিয়ে মঙ্গলবার দুপুরে সংসদ ভবনে বৈঠকে বসেন তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই বৈঠকে উপস্থিত থাকতে বলা হয়েছিল রাজ্যসভা ও লোকসভার সাংসদদের। তবে বাস্তবে শীর্ষ নেতৃত্বের নির্দেশ অমান্য করেই বৈঠকে গরহাজির ছিলেন যাদবপুরের সাংসদ মিমি চক্রবর্তী ও বসিরহাটের সাংসদ নুসরত জাহান। এরপরই দলীয় বৈঠকে অনুপস্থিত সাংসদদের শোকজের সিদ্ধান্ত নেয় তৃণমূল।

অভিষেকের উপস্থিতিতে সংসদীয় দলের বৈঠকে ঠিক কী কারণে গরহাজির? দলকে দ্রুত জানাতে নির্দেশ নুসরত জাহান, মিমি চক্রবর্তীকে। অন্যদিকে, দলীয় সাংসদদের বৈঠকে ফের কংগ্রেসকে নিশানা করেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি জানান, " বাংলায় আমাদের বিরুদ্ধে লড়ছে কংগ্রেস, বিরোধী ঐক্য নেই। আমরা গোয়ার মতো রাজ্যে গেলেই বিরোধী ঐক্য নিয়ে প্রশ্ন উঠছে। এটাই দ্বিচারিতা, কংগ্রেসের চেয়ে আমাদের কৌশল ভিন্ন হতে হবে। এরপরে আমরা কোন রাজ্যে যাব, সেটা এখনই প্রকাশ্যে আনছি না। যে রাজ্যে আমরা ছাপ ফেলতে পারব সেখানেই যাব।" 

সংসদীয় দলের বৈঠকে জনগণের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদকের নির্দেশ, বাংলার ইস্যু সংসদে আরও বেশি করে তুলতে হবে। দলের সাংগঠনিক সম্প্রসারণ মাথায় রাখতে হবে সাংসদের। সংসদে একলা চলো নীতিতেই চলবে তৃণমূল। এরপরই দলীয় বৈঠকে অনুপস্থিত সাংসদদের শোকজের সিদ্ধান্ত নেয় তৃণমূল কংগ্রেস।