উৎসবের মধ্যেই সুখবর! জ্বালানী তেলের অতিরিক্ত শুল্কগ্রহন আরও এক মাস পিছোল কেন্দ্র

রাজনৈতিক মহলের মতে কার্যত চাপে পড়েই এই অতিরিক্ত শুল্ক আদায়ের সময়সীমা পিছিয়ে দিল কেন্দ্র

উৎসবের মধ্যেই সুখবর! জ্বালানী তেলের অতিরিক্ত শুল্কগ্রহন আরও এক মাস পিছোল কেন্দ্র

আরোহী নিউজডেস্ক: উৎসবের মধ্যেই সুখবর শোনাল কেন্দ্রীয় সরকার। পেট্রল ও ডিজেলের উপরে অতিরিক্ত উৎপাদন শুল্ক ২ টাকা নেওয়ার যে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল তা ১ মাসের জন্য পিছিয়ে দেওয়া হল। ফলে ১ অক্টোবর নয়, আগামী ১ নভেম্বর থেকে ওই অতিরিক্ত শুল্ক নেওয়া হবে বলে অর্থ মন্ত্রক বিজ্ঞপ্তি দিয়ে জানিয়ে দিল। উল্লেখ্য, গত ফেব্রুয়ারি মাসে বাজেট পেশ করার সময়ই কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ জানিয়েছিলেন, ইথানল ও বায়ো-ডিজেল মেশানো হয় না যে পেট্রল ও ডিজেলের উপরে অতিরিক্ত শুল্ক চাপানো হবে ১ অক্টোবর থেকে। ২ টাকা প্রতি লিটার এই অতিরিক্ত শুল্ক চাপানোর কথা বলা হয়েছিল। ফলে উৎসবের মরশুমে সাধারণ মানুষের কাঁধে অতিরিক্ত বোঝা চেপে যাবে বলেই সরব হয়েছিল বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলি।

রাজনৈতিক মহলের মতে কার্যত চাপে পড়েই এই অতিরিক্ত শুল্ক আদায়ের সময়সীমা পিছিয়ে দিল কেন্দ্র। কারণ, দুর্গোৎসব, নবরাত্রী, দশেরা এবং দীপাবলীর মতো উৎসবের মরশুম শুরু হয়ে গিয়েছে অক্টোবর মাসেই। ফলে অতিরিক্ত পেট্রল-ডিজেলের মতো জ্বালানীতে ২ টাকা অতিরিক্ত শুল্ক চাপলে দাম বাড়তো। ফলে এই সিদ্ধান্ত নিল কেন্দ্র। যদিও কেন্দ্রের দাবি, বর্তমানে ৯০ শতাংশ পেট্রলের সঙ্গে ১০ শতাংশ ইথানল মেশানো হয়। এই ইথানল বের করা হয় আখ ও উদ্বৃত্ত খাদ্যশস্য থেকে। নির্মলা সীতারমণ বলেছিলেন, ”জ্বালানির মিশ্রণ সরকারের অগ্রাধিকার। জ্বালানির মিশ্রণের প্রচেষ্টাকে উৎসাহিত করার জন্য, অ-মিশ্রিত জ্বালানির ক্ষেত্রে লিটারপিছু ২ টাকা অতিরিক্ত শুল্ক নেওয়া হবে। কেন্দ্রের যুক্তি ছিল যাতে বায়ো ডিজেল এবং ইথানল মিশ্রিত পেট্রল বিক্রির উৎসাহ বাড়ে তাই এই সিদ্ধান্ত। এতে কৃষকদের সুরাহা হবে।