‘মেয়ে পাশ করেছে, সার্টিফিকেট আছে’, হাসপাতালের পথে বললেন অনুব্রত

বৃহস্পতিবার বেলা ১২টার কিছু আগে অনুব্রতকে নিয়ে নিজাম প্যালেস থেকে বেরোয় সিবিআইয়ের কনভয়

‘মেয়ে পাশ করেছে, সার্টিফিকেট আছে’, হাসপাতালের পথে বললেন অনুব্রত

আরোহী নিউজডেস্ক: বুধবারই আদালতে ধাক্কা খেয়েছিলেন অনুব্রতকন্যা, তাঁকে আদালতে হাজির হওয়ার নির্দেশ দিয়েছে কলকাতা হাইকোর্ট। ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই এই বিষয়ে মুখ খুললেন অনুব্রত। বৃহস্পতিবার সকালে ধৃত তৃণমূল নেতা দাবি করলেন, ‘যা বোঝার আদালত বুঝবে। তলব করেনি মেয়েকে। নথি জমা দিতে বলেছে’। বৃহস্পতিবার সকালে নিজাম প্যালেস থেকে কম্যান্ড হাসপাতালে স্বাস্থ্য পরীক্ষা করতে নিয়ে যাওয়ার সময় একথা বলেন তিনি। উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবারই তাঁর চাকরি সংক্রান্ত যাবতীয় কাগজপত্র এবং টেট পাশের নথি নিয়ে আদালতে হাজির হতে হবে অনুব্রত মণ্ডলের মেয়ে সুকন্যা মণ্ডলকে।

গরু পাচার মামলায় গ্রেফতার হওয়ার পর গত সাত দিনে বারবার সুযোগ পেয়েও মুখ খোলেননি অনুব্রত মণ্ডল। কিন্তু মেয়েকে নিয়ে টানাটানি শুরু হতেই এদিন সাংবাদিকদের উত্তর দিলেন এই বিষয়ে। স্পষ্ট ভাষায় দাবি করলেন, ‘আমার মেয়ে ভাল আছে। আমার মেয়ের পাশ করা আছে। সার্টিফিকেট আছে। চিন্তার কারণ নেই’। বৃহস্পতিবার বেলা ১২টার কিছু আগে অনুব্রতকে নিয়ে নিজাম প্যালেস থেকে বেরোয় সিবিআইয়ের কনভয়। গন্তব্য ছিল কম্যান্ড হাসপাতাল। স্বভাবতই পিছু নেন সাংবাদিকরা।

এর পর রাস্তায় সিগনালে গাড়ি দাঁড়ালে সাংবাদিকরা তাঁর কাছে জানতে চান, মেয়েকে আদালত হাজিরা দিতে বলেছে, কী বলবেন? জবাবে এই কথাই বললেন বীরভূমের দাপুটে নেতা। এরপরই তাঁকে প্রশ্ন করা হয় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিয়েও। জবাবে তিনি বলেন, ‘উনি ঠিকই বলেছেন। নেত্রী হিসাবে পাশে থাকবেন না?’ শারীরিক পরিস্থিতি নিয়ে তাঁকে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, ‘বুকে একটা চাপ আছে। অনেক ওষুধ খাই তো..’। রাজনৈতিক মহলের মতে, অনুব্রত মণ্ডল গ্রেফতার হওয়ার পর তৃণমূল নেত্রী কেন্দ্রীয় এজেন্সিগুলির তৎপরতার বিরুদ্ধে মুখ খুলেছিলেন। এরপরই আত্মবিশ্বাসী অনুব্রত সাংবাদিকদের কাছে মুখ খুললেন।