বিস্ফোরক অর্পিতা! ‘আমার অজান্তেই আমার ফ্ল্যাটে টাকা রাখা হয়েছে’

স্পষ্ট ভাষায় জানিয়ে দিলেন, এই টাকার পাহাড় তাঁর নয়। অর্পিতা বলেন, ‘এই টাকা আমার নয়। আমার অনুপস্থিতিতে এবং আমার অজান্তে এই টাকা ঘরে ঢোকানো হয়েছে’

বিস্ফোরক অর্পিতা! ‘আমার অজান্তেই আমার ফ্ল্যাটে টাকা রাখা হয়েছে’

আরোহী নিউজ ডেস্ক: মঙ্গলবার ফের জোকার ইএসআই হাসপাতালে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য নিয়ে আসা হয়েছিল ধৃত পার্থ চট্টোপাধ্যায় ও তাঁর ঘনিষ্ট অর্পিতা মুখোপাধ্যায়কে। এর আগে হাসপাতাল চত্বরে কান্নায় ভেঙে পড়তে দেখা গিয়েছিল অর্পিতাকে। তবে এদিন মিডিয়ার সামনে মুখ খুললেন তিনি। স্পষ্ট ভাষায় জানিয়ে দিলেন, এই টাকার পাহাড় তাঁর নয়। অর্পিতা বলেন, ‘এই টাকা আমার নয়। আমার অনুপস্থিতিতে এবং আমার অজান্তে এই টাকা ঘরে ঢোকানো হয়েছে’। যদিও এই টাকা কার বা কোথায় যেত সেই নিয়ে কোনও ইঙ্গিত দেননি তিনি। ফলে স্বভাবতই প্রশ্ন উঠছে, এই টাকা যদি পার্থ বা অর্পিতার না হয়, তাহলে কার? কে বা কারা এই বিপুল পরিমান টাকা রেখে গিয়েছিল অর্পিতার ফ্ল্যাটে? এই ব্যাপারে কিছু জানায়নি অর্পিতা।

তাৎপর্যপূর্ণভাবে এর আগে ইডি-র হাতে ধৃত রাজ্যের প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী তথা অপসারিত শিল্পমন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ও বলেছিলেন এই টাকা তাঁর নয়। এবার একই দাবি করলেন অর্পিতাও। বিগত এক সপ্তাহ ধরে রাজ্য রাজনীতি তোলপাড় হচ্ছে পার্থ ঘনিষ্ট অর্পিতার দুটি ফ্ল্যাট থেকে প্রায় ৫০ কোটি টাকা নগদ অর্থ এবং প্রচুর সোনার গয়না উদ্ধার হওয়া ঘিরে। এরমধ্যেই এনফোর্সমেন্ট ডাইরক্টরেট (ইডি) দুজনকেই গ্রেফতার করেছে এবং বর্তমানে তাঁরা ইডি হেফাজতে রয়েছেন। সূত্রের খবর, তাঁদের দফায় দফায় জেরা করছেন ইডি-র আধিকারিকরা। সেই সূত্রে মঙ্গলবারও রাজ্যের বেশ কয়েকটি এলাকায় তল্লাশি অভিযান শুরু করেছে। এরমধ্যেই সংবাদমাধ্যমের সামনে বিস্ফোরক মন্তব্য করলেন অর্পিতা মুখোপাধ্যায়। তাঁর দাবি, এই টাকা যেমন তাঁর নয়, তেমনই দাবি করলেন তাঁর অনুপস্থিতিতে এবং অজান্তেই ফ্ল্যাটে টাকা ঢোকানো হয়েছে। এমনকি এই টাকার সঙ্গে তাঁর কোনও যোগ নেই বলেও জানিয়ে দিলেন অর্পিতা।