প্রথা ভেঙে দলীয় শহিদদের উদ্দেশ্যে তর্পণ করলেন বিজেপি সাংসদ লকেট

তর্পণ শেষে সাংসদ বলেন, দেবী পক্ষের সূচনায় তর্পনের মাধ্যমে অশুভ শক্তির বিনাশ প্রার্থনা করা হয়

প্রথা ভেঙে দলীয় শহিদদের উদ্দেশ্যে তর্পণ করলেন বিজেপি সাংসদ লকেট

আরোহী নিউজডেস্ক: প্রথা ভেঙ্গে তর্পণ করেলন বিজেপি সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায়। রবিবার দলীয় শহিদ কর্মিদের জন্য চুঁচুড়া জোড়াঘাটে তর্পন করলেন হুগলির সাংসদ।  তর্পণ শেষে সাংসদ বলেন,"দেবী পক্ষের সূচনায় তর্পনের মাধ্যমে অশুভ শক্তির বিনাশ প্রার্থনা করা হয়। বংলায় যে ভাবে সন্ত্রাষ চলছে, মানুষকে খুন করা হচ্ছে, মা বোনেদেরও রেহাই দেওয়া হচ্ছেনা, বাংলার আকাশে বাতাশে অশুভ শক্তি ঘুরে বেরাচ্ছে। সেই অশুভ শক্তির বিনাশ হোক,শুভ শক্তির সূচনা হোক"।

দেবীপক্ষের সূচনার আগেই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় একাধিক দুর্গাপুজো উদ্বোধন করেছেন। সেই প্রসঙ্গে লকেট বলেন, "দুর্গার আরাধনা নয় দেখে মনে হচ্ছে মমতা দেবীর আরাধনা হচ্ছে। বাংলার আইন-শৃঙ্খলা যেমন নিজের হাতে নিয়ে নিয়েছেন, দুর্গাপূজা কেউ কেউ নিজের মত ভাবছেন। এটা ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত করে এবং মানুষের উচিৎ এর প্রতিবাদ করা।" 

পঞ্চায়েত নির্বাচন প্রসঙ্গ নিয়েও মুখ খোলেন লকেট৷  তিনি বলেন, ‘‘পঞ্চায়েত নিয়ে কয়েকদিন ধরে বিজেপির অন্দরে আলোচনা চলছে৷ যেভাবে চারদিকে দূর্নীতি চলছে, সেটা পঞ্চায়েত অবধি গিয়েছে৷ তৃণমূল চালিত পঞ্চায়েত প্রধানরা দুর্নীতিগ্রস্ত, কোটি কোটি টাকার দুর্নীতি হয়েছে, এই সব বিষয়গুলিকে জনসমক্ষে তুলে ধরা হবে৷ লোকসভার আগে পঞ্চায়েত নির্বাচনে আমাদের সব কর্মীরা চোখে চোখ রেখে লড়াই করবে, সেই পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে৷’’ অনুব্রত মণ্ডল প্রসঙ্গে তাঁর দাবি, ‘‘এত জমি-টাকা অনুব্রতরা লুঠ করেছে, কর্মের ফল এদের ভোগ করতে হবে৷ অনেক মানুষের চোখের জল রয়েছে। অনুব্রত মণ্ডলকে আগামী কয়েক বছর শারদোৎসব গারদেই কাটাতে হবে’’৷