স্বস্তিতে শিক্ষকরা, হাইকোর্টের নির্দেশে ৫ বছরের আগেই বদলির সুযোগ

কলকাতা হাইকোর্টের এক নির্দেশে স্বস্তি মিলল শিক্ষকদের। এবার চাকরির বয়স ৫ বছর না হলেও বদলির সুযোগ পাবেন তাঁরা

স্বস্তিতে শিক্ষকরা, হাইকোর্টের নির্দেশে ৫ বছরের আগেই বদলির সুযোগ

আরোহী নিউজ ডেস্ক: কলকাতা হাইকোর্টের এক নির্দেশে স্বস্তি মিলল শিক্ষকদের। এবার চাকরির বয়স ৫ বছর না হলেও বদলির সুযোগ পাবেন তাঁরা। এর জন্য এসএসসি আইনে বদলের নির্দেশ দিল কলকাতা হাইকোর্ট। এই নির্দেশে স্বভাবতই খুশি রাজ্যের শিক্ষক মহল। বর্ধমানের আউশগ্রামের হাতকিরিনগর বিদ্যালয়ের শিক্ষিকা হাসিমা খাতুনের দায়ের করা এক মামলায় এই রায় দিল কলকাতা হাইকোর্ট। মামলাকারীর বাড়ি দক্ষণ ২৪ পরগনার মগরাহাটে। কিন্তু তাঁকে বাড়ি থেকে প্রায় ৪০০ কিলোমিটার দূরে বর্ধমানের আউশগ্রামে কাজে যোগ দিতে হয়। ফলে তিনি নিয়মিত বাড়ি থাকতে পারেন না।

এর জেরেই তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েন বলে দাবি। চিকিৎসকরা ওই শিক্ষিকাকে এত দূর যাতায়াত করতে নিষেধ করেন। এরপরই তিনি বদলির আবেদন করেন। কিন্তু ২০১৯ সালে কাজে যোগ দেওয়ায় তাঁর আবেদন গ্রাহ্য হয়নি। ২০২১ সালের ২৪ অগাস্ট হামিদা খাতুনের বদলির আবেদন বাতিল করে দেয় স্কুল সার্ভিস কমিশন। এরপরই এসএসসির সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ করে কলকাতা হাইকোর্টে মামলা করেন হামিদা খাতুন। একই কারণে বদলি চেয়ে  সুদেষ্ণা বেরা, মাফুজা খাতুন-সহ অনেকেই কলকাতা হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিলেন।

 এই মামলায় সব পক্ষের বক্তব্য শোনার পর সোমবার বিচারপতি রাজাশেখর মান্থা বলেন, ‘অসুস্থতা কী ডাকবিভাগে বলে আসে! যে কোনও সময় মানুষ অসুস্থ হতে পারেন’। এরপরই বিচারপতি মান্থা নির্দেশ দেন, শারীরিক অসুস্থতা থাকলে ৫ বছর চাকরি না হলেও প্রয়োজনে বদলি হবে। তিনি আরও জানান, আগামী ৬ মাসের মধ্যেই এই নির্দেশ কার্যকর করতে হবে। উল্লেখ্য, রাজ্যের শিক্ষকদের বদলি প্রক্রিয়া স্বচ্ছ করতে রাজ্য সরকার নির্দিষ্ট পোর্টাল চালু করেছে। তার পরেও এসএসসি-র কয়েকটি আইনের জেরে অনেক শিক্ষক-শিক্ষিকা বাড়ির কাছাকাছি বদলি নিতে পারছেন না। হাইকোর্টের নির্দেশে এবার তাঁদের সুবিধা হল।