আরও অগ্রাসী চিন, তাইওয়ানের আকাশে যুদ্ধের আশঙ্কা

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের হাউস অফ রিপ্রেজেন্টেটিভসের স্পিকার ন্যান্সি পেলোসির তাইওয়ান সফর ঘিরে নতুন করে উত্তেজনা

আরও অগ্রাসী চিন, তাইওয়ানের আকাশে যুদ্ধের আশঙ্কা

আরোহী নিউজডেস্ক:  মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের হাউস অফ রিপ্রেজেন্টেটিভসের স্পিকার ন্যান্সি পেলোসির তাইওয়ান সফর ঘিরে নতুন করে উত্তেজনা। এই সফরের পর তাইওয়ান ইস্যুতে চিন আরও আগ্রাসী মনোভাব নিয়েছে। সূত্রের খবর, তাইওয়ানকে লক্ষ্য করে ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করেছে চিন। পাশাপাশি চিন সামরিক মহড়াও শুরু করেছে তাইওয়ান সংলগ্ন এলাকায়।  অন্যদিকে, তাইওয়ান সংলগ্ন এলাকায় জলপথে এখনও টহল দিচ্ছে মার্কিন যুদ্ধজাহাজ।ফলে  বুধবার পেলোসির তাইওয়ান সফরের শেষে পরিস্থিতি আরও খারাপ হয়েছে বলেই মনে করছেন আন্তর্জাতিক মহল। একিদেক েযমন   বেজিংয়ের ‘ওয়ান নেশন পলিসি’ মানতে নারাজ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। অন্যদিকে ‘ওয়ান নেশন পলিসি’ অনুযায়ী চিন তাইওয়ানকে চিনের ভূখণ্ডের অংশ হিসেবেই মনে করে। পেলোসির সফর চিনের সেই দাবিকে নস্যাৎ করে, তাই তাইওয়ান ইস্যুতে আরও আগ্রাসী চিন।

আন্তর্জাতিক সংবাদ সংস্থা অনুযায়ী, তাইওয়ান প্রণালিতে সামরিক মহড়া চালাচ্ছে বেজিং। তাইওয়ানকে লক্ষ্য করে ইতিমধ্যেই বেশ কয়েকটি ক্ষেপনাস্ত্রও নিক্ষেপ করেছে চিনা সেনা। যার নিন্দা করছে আন্তর্জাতিক মহল। অন্যদিকে তাইওয়ান জানিয়েছে,  চিনের লাল ফৌজের মহড়ার প্রেক্ষিতে সতর্কতা জারি রয়েছে। এমনকি দেশের নাগরিকদেরও প্রয়োজনে যুদ্ধে যাওয়ার জন্য তৈরি থাকতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। সূত্রের খবর, তাইওয়ানের কাছাকাছি চিনের পাঁচটি সামরিক হেলিকপ্টার উড়েছে। ফলে পরিস্থিতি ক্রমশ আরও উত্তেজক হয়ে উঠছে। এব্যাপারে তাইওয়ানের প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের বক্তব্য, তারা যে কোনও পরিস্থিতির জন্যেই তৈরি। তবে চিনের সঙ্গে বিরোধে যেতে চাইছে না তাইওয়ান। এদিকে তাইওয়ানের ২ কোটি ৩০ লক্ষ বাসিন্দা যুদ্ধ লাগার সম্ভাবনা নিয়ে দিন কাটাচ্ছেন। এরপর পরিস্থিতি কোনদিকে এগোবে তা এখন সময়ের অপেক্ষা।