মোদির উপস্থিতিতেই SCO সম্মেলনে ভুল মানচিত্র চিনের, বাদ অরুণাচল-লাদাথ-কাশ্মীর

প্রধানমন্ত্রীর উপস্থিতিতে চিনের সরকারি মিডিয়া কীভাবে এরকম মানচিত্র প্রকাশ করল তা নিয়ে প্রশ্ন তুলছেন বিরোধী দলগুলি

মোদির উপস্থিতিতেই SCO সম্মেলনে ভুল মানচিত্র চিনের, বাদ অরুণাচল-লাদাথ-কাশ্মীর

আরোহী নিউজডেস্ক:  ভারতীয় ভূখণ্ড থেকে বাদ গেল অরুণাচল, লাদাখ ও কাশ্মীর? চাঞ্চল্যকর এমনই এক মানচিত্র ঘিরে শুরু হয়েছে তুমুল বিতর্ক। সাংহাই কো-অপারেশন সম্মেলনের (SCO) সময় চিনের রাষ্ট্রীয় মিডিয়ার প্রকাশিত এক মানচিত্র ঘিরে শুরু হয়েছে শোরগোল। সেখানে কার্যত ভারতের মূল ভূখণ্ড থেকে পৃথক করা হয়েছে অরুণাচল প্রদেশ, লাদাখ ও কাশ্মীরকে।  যা নিয়ে বিতর্ক তৈরি হয়। ওই সম্মেলনে উপস্থিত রয়েছেন স্বয়ং ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।  ফলে স্বভাবতই প্রধানমন্ত্রীর উপস্থিতিতে চিনের সরকারি মিডিয়া কীভাবে এরকম মানচিত্র প্রকাশ করল তা নিয়ে প্রশ্ন তুলছেন বিরোধী দলগুলি। 

প্রসঙ্গত অরুণাচল, লাদাখের উপর নিজেদের অধিকারের দাবি দীর্ঘদিন ধরে করে আসছে চিন।  অন্যদিকে কাশ্মীরকে নিজেদের বলে দাবি করছে পাকিস্তান। চিনা মিডিয়ার প্রকাশিত মানচিত্রে অরুণাচল-লাদাখ ঠাঁই পেয়েছে চিনা ভূখণ্ডে আর কাশ্মীর ঠাঁই পেয়েছে পাকিস্তানের মূল ভূখণ্ডে।  স্বভাবতই এই মানচিত্র ঘিরে শুরু হয়েছে বিতর্ক। সাংহাই সমবায় সম্মেলনের মতো একটি আন্তর্জাতিক মঞ্চে যেখানে উপস্থিত ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি স্বয়ং, সেখানে এইরকম বিকৃত মানচিত্র প্রকাশ করে চিন কি কূটনৈতিক বার্তা দিতে চাইছে ভারতকে? সেই নিয়েও ওয়াকিবহাল মহলে চলছে জোর  জল্পনা। প্রসঙ্গত, আগামী সাংহাই সমবায় সম্মেলনে সভাপতিত্ব করবে ভারত। চীনা সংবাদমাধ্যমের প্রকাশিত মানচিত্রে ভারতকে কাজাকিস্তানের থেকেও ছোট একটি দেশ হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে বলে দাবি করেন বিখ্যাত সুইডেনের উপসালা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক অশোক সোয়েন। কংগ্রেসের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে, "প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিনে মানচিত্র উপহার চীনের" এর আগে কংগ্রেস-সহ বিরোধীরা যখন অভিযোগ তুলেছিল যে চৈনিক আগ্রাসন অরুণাচল হয়ে ভারতে প্রবেশ করছে, তখন মোদি সরকার সেই অভিযোগকে ভিত্তিহীন বলে দাবি করেছিল।