দেশে ক্রমশ কমছে করোনা সংক্রমণ

দেশে ক্রমশ কমছে করোনা সংক্রমণ

আরোহী নিউজ ডেস্ক :  গত বছরের শুরুর দিকেই দেশে করোনা সংক্রমণের প্রকোপ শুরু হয়। প্রথম ঢেউ পেরিয়ে দ্বিতীয় ঢেউয়ের ভয়ঙ্কর চেহারার সাক্ষী থেকেছে ভারত। তবে বেশ কয়েক সপ্তাহ ধরেই সেই সংখ্যাটা ক্রমাগত কমতে শুরু করেছিল। প্রায় ১৫ হাজারের নীচেই ছিল সংক্রমণ। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের রিপোর্ট অনুযায়ী, গত ২৪ ঘন্টায় দেশে ৭ হাজার ৫৭৯ জন আক্রান্ত হয়েছে।  একদিনে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ১২ হাজার ২০২ জন। করোনাকে হারিয়ে মোট সুস্থ হয়ে ওঠার সংখ্যা ৩ কোটি ৩৯ লাখ ৪৬ হাজার ৭৪৯ জন। দেশে সক্রিয় রোগীর সংখ্যা ৪ হাজার ৮৫৯ জন। মোট সক্রিয় রোগী ১ লক্ষ ১৩ হাজার ৫৮৪ জন।

তবে উদ্বেগ বাড়িয়ে গোটা রাজ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় মাত্র ২৬ হাজার ৩০৬ জনের করোনা পরীক্ষা হয়েছে, যার মধ্যে ৬১৫ জন করোনা পজিটিভ। রাজ্যে করোনা পজিটিভিটি রেট গতকালের১.৮১% থেকে এক ধাক্কায় অনেকটাই বেড়ে ২.৩৪% হল। রাজ্যের মধ্যে যথারীতি করোনা আক্রান্তের ক্ষেত্রে কলকাতার রেকর্ডকে অন্য কোন জেলা টপকাতে পারছে না। কলকাতায় করোনা আক্রান্ত সবথেকে বেশি। গত ২৪ ঘণ্টায় কলকাতায় ১৭৩ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছে, আর মৃত্যু হয়েছে ৫ জনের। অন্যদিকে এরপরই উত্তর ২৪ পরগনা জেলায় ১৩৮ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছে এবং করোনায় মৃত্যু হয়েছে ৪ জনের। নতুন করে কলকাতার পাশের হাওড়া জেলায় আক্রান্ত বেশ কিছুটা বেড়ে হয়েছে ৩৭ জন,মৃত্যু হয়েছে ১ জনের। 

জোরকদমে চলছে টিকাকরণও। দেশজুড়ে ১১৭ কোটিরও বেশি টিকা দেওয়া হয়েছে। এদিন সংক্রমিতের সংখ্যা একধাক্কায় অনেকটা কমায় কিছুটা স্বস্তিতে চিকিত্‍সক মহল। এখনও সংক্রমণের নিরিখে কেরলে সংক্রমণ সর্বোচ্চ। সেই রাজ্যে একদিনে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন প্রায় ৩ হাজার ৬৯৮ জন। মৃত্যু হয়েছে ১৮০ জনের। এরপরই রয়েছে মহারাষ্ট্র। গত ২৪ ঘণ্টায় সংক্রমণ ৬৫৬ জনের শরীরে হদিশ মিলেছে ভাইরাসের।একদিনে মৃত্যু হয়েছে ৮ জনের। মহারাষ্ট্রের পরে রয়েছে কর্নাটক। সেই রাজ্যে আক্রান্তের সংখ্যা ১৭৮। গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু হয়েছে ২ জনের। আর তামিলনাড়ুতে আক্রান্ত হয়েছেন ৭৫০ জন।