রাজ্যে ফের কমল দৈনিক করোনা সংক্রমণ

 রাজ্যে ফের কমল দৈনিক করোনা সংক্রমণ

আরোহী নিউজ ডেস্ক :  উত্‍সবের মরশুম শেষে দেশের দেশের কোভিড  গ্রাফে আরও স্বস্তি। গত ২৪ ঘন্টার থেকে আরও কমল সংক্রমণ। কমল অ্যাকটিভ কেসের সংখ্যাও। স্বাস্থ্যমন্ত্রকের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ৯ হাজার ১১৯ জন।স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রকের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, গতকালের চেয়ে দৈনিক সংক্রমণ আরও কমেছে। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ৯ হাজার ১১৯ জন। একদিনে দেশে করোনায় মৃত্যু ৩৯৬ জনের। করোনার তৃতীয় ধাক্কা নিয়ে আতঙ্ক কমছে। দেশের সার্বিক সংক্রমণ পরিস্থিতিই সেই আতঙ্ক কমাচ্ছে। প্রতিদিন কমছে সংক্রমিতের সংখ্যা। কমছে করোনা সক্রিয় রোগীর সংখ্যাও। বিশেষজ্ঞদের একাংশ বলছেন, টিকাকরণকে হাতিয়ার করেই করোনা-যুদ্ধ জয়ের পথে ভারত। যদিও এব্যাপারে বিন্দুমাত্র আত্মতুষ্টির কোনও জায়গা নেই বলেও মনে করিয়ে দিচ্ছেন তাঁরা। সংক্রমণ এড়াতে এখনও করোনা-বিধি মেন চলতে হবে বলেও বারবার জানাচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা।

স্বাস্থ্যমন্ত্রকের দেওয়া এদিনের পরিসংখ্যান স্বস্তি দিচ্ছে। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে করোনায় কাবু ৯ হাজার ১১৯ জন, মৃত্যু ৩৯৬ জনের। একদিনে দেশে করোনামুক্ত হয়েছেন ১০ হাজার ২৬৪ জন। এই মুহূর্তে দেশে করোনা অ্যাক্টিভ কেসের সংখ্যা ১ লক্ষ ৯ হাজার ৯৪০। গত ৫৩৯ দিনের মধ্যে যে পরিসংখ্যান সর্বনিম্ন। টিকাকরণকে হাতিার করেই করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে এই সাফল্য এসেছে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। রাজ্যে-রাজ্যে চলছে টিকাকরণ কর্মসূচি। স্বাস্থ্যমন্ত্রকের তথ্য বলছে, এখনও পর্যন্ত ১৩২ কোটিরও বেশি টিকার ডোজ দেওয়া রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলির হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে। ইতিমধ্যেই ১১৯ কোটিরও বেশি দেশবাসী করোনা টিকার অন্তত একটি ডোজ পেয়ে গিয়েছেন।

এখনও পর্যন্ত দেশে ১৩২ কোটির বেশি টিকার ডোজ দেওয়া হয়েছে রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলিকে। ডিসেম্বর মাসের মধ্যে দেশের সকলকে করোনা টিকাকরণের ডোজ দেওয়ার টার্গেট নেওয়া হয়েছে।