তৃণমূল কংগ্রেসের দাদাগিরি শেষ, গোয়ালে ঢুকে গেছে, ফের বিস্ফোরক দিলীপ

dilip ghosh, trinamool, TMC, attack

তৃণমূল কংগ্রেসের দাদাগিরি শেষ, গোয়ালে ঢুকে গেছে, ফের বিস্ফোরক দিলীপ

আরোহী নিউজ ডেস্ক:  ইকোপার্কে এসে ফের বিস্ফোরক দিলীপ। সোমবার সকালে মর্নিং ওয়াকে এসে প্রতিদিনের মতো এদিনও বিজেপির সর্বভারতীয় সহসভাপতি দিলীপ ঘোষকে রাজ্যের শাসক দলের বিরুদ্ধে একের পর এক তোপ দাগতে দেখা গেল। বিধানসভায় শাসকদলের ইডি, সিবিআইয়ের বিরুদ্ধে নিন্দা প্রস্তাব থেকে শুরু করে শহরে বাড়তে থাকা ডেঙ্গুর প্রকোপ, সমস্ত কিছু নিয়ে এদিন জোরালো মন্তব্য করতে দেখা গেল দিলীপকে। তাঁর কথায়, তৃণমূল কংগ্রেসের সমস্ত দাদাগিরি শেষ। গোয়ালে ঢুকে গেছে। রাস্তায় আন্দোলন নেই। কে কখন ঢুকে যাবে ঠিক নেই। মেজরিটি আছে। তাই বিধানসভায় প্রস্তাব পাশ করাবে। তাতে কি যায় আসে?        

 অন্যদিকে শহরের ডেঙ্গু পরিস্থিতি প্রসঙ্গে এদিন দিলীপ ঘোষ বলেন, শুধু পুরসভা না। সারা রাজ্য জুড়ে ডেঙ্গির বাড়বাড়ন্ত। বড় বড় ইস্যু চলে আসছে। আপনাদের নজরও ঘুরে যাচ্ছে। কিছু বললে মেয়র চেপে যায়। এটা একটা গভীর সমস্যা। দরকারে কেন্দ্রের সাহায্য নিন। অন্যদিকে এদিন তৃণমূল বিধায়ক মদন মিত্রকেও জোরালো ভাষায় আক্রমন করতে দেখা যায় দিলীপ ঘোষকে। তাঁর কথায়, সোজা হয়ে দাঁড়াতে পারেন না। কি দাওয়াই দেবেন?  আমাদেরও হাত আছে। জিতে গিয়ে গায়ের জোর দেখাচ্ছিলেন। ১৩ তারিখ বুঝে গেছেন। পুলিশ গুন্ডা সব লাগিয়েছিল। বুঝে গেছে বাংলার মুড পাল্টে গেছে। মানুষ দায়িত্ব দিয়েছে। পালন করুন। নাহলে কান ধরে টেনে মানুষ নামিয়ে দেবে। 

এছাড়া কলকাতার মেয়র ফিরহাদ হাকিম, তৃণমূল কংগ্রেসের মুখপাত্র কুণাল ঘোষকেও এক হাত নেন দিলীপ। এদিন তিনি বলেন, ববি হাকিমের প্রমোশন হয়নি, দিলীপ ঘোষের হয়েছে। তাই যে যা পারছে বলছে।   

 তবে তৃণমূলের সব নেতারাই যে খারাপ তা কিন্তু মানেন না দিলীপ ঘোষ। এদিন তাঁর মুখে পরিষদীয় মন্ত্রী শোভনদেব ও তৃণমূল বিধায়ক তাপস রায়ের প্রশংসাও শোনা গিয়েছে।তিনি বলেন তাপস রায় এবং শোভনদেব ভদ্রলোক। তাই গুটিকয়েক ভদ্রলোক মনের দুঃখে এসব বলে ফেলেন। তিনি আরও বলেন আক্ষেপ, এই দলেই তাদের থাকতে হবে।