ইজেডসিসি-তে বিজেপির পুজোয় ‘চমক’ সুলতা, নেই কোনও আড়ম্বর

ইজেডসিসি-তে বিজেপির পুজোয় ‘চমক’ সুলতা, নেই কোনও আড়ম্বর

আরোহী নিউজডেস্ক: উদ্বোধনে ছিলেন না বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী কিংবা প্রাক্তন রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। ফলে বিধাননগরের পূর্বাঞ্চলীয় সংস্কৃতি কেন্দ্র বা ইজেডসিসি-তে বঙ্গ বিজেপির তৃতীয় ও শেষ বারের পুজোয় দেবীর বোধন একেবারেই অনাড়ম্বরভাবে হল। যদিও উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে হাজির ছিলেন রাজ্য বিজেপির সভাপতি সুকান্ত মজুমদার। এছাড়া ছিলেন, সাধারণ সম্পাদক (সংগঠন) অমিতাভ চক্রবর্তী, প্রাক্তন রাজ্য সভাপতি রাহুল সিংহ এবং বিধায়ক তথা রাজ্য সাধারণ সম্পাদক অগ্নিমিত্রা পাল। গত দুই বছর যেমন বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতৃ্ত্বের উপস্থিতি ছিল চোখে পড়ার মতো। সেই তুলনায় এবার বিজেপির পুজোয় দেবীর বোধন হল অনেকটাই অনাড়ম্বরভাবে।

বিজেপির পুজোয় এবার 'চমক' বলতে শুধুমাত্র মহিলা পুরোহিত সুলতা মণ্ডল। যদিও তাঁকে নিয়ে বিতর্ক কম হয়নি বঙ্গ বিজেপির অন্দরে। কারণ একজন মহিলা পুরোহিত পুজো করবেন শুনে দলের অনেকেই বিরোধিতা করেন। যদিও সুকান্ত মজুমদারের ঘনিষ্ঠ সুলতাকে দিয়েই পুজো করানোর সিদ্ধান্তে শিলমোহর পড়ে। তবে গেরুয়া শিবির সূত্রে খবর, বিতর্ক থামাতে সপ্তমী থেকে মূল পুজোয় একজন পুরুষ পুরোহিতও থাকবেন। তাতে শ্যাম ও কূল দুইই বজায় থাকবে। অপরদিকে, ইজেডসিসি-র পুজো মণ্ডপে ভোট পরবর্তী হিংসা থেকে শিক্ষক নিয়োগে ‘দুর্নীতি’ নিয়ে বিভিন্ন পোস্টার ও ছবির প্রদর্শনী রয়েছে। যা নিয়েও বিতর্ক দেখা দিয়েছে। তৃণমূলের মুখপাত্র কুণাল ঘোষ বলেন, যাঁদের কোনও সামাজিক পুজোর সঙ্গে যোগ নেই, সরকারি হল ভাড়া করে আয়োজন করতে হয় তাঁদের কোনও গুরুত্বই নেই বাংলার মানুষের কাছে।