পাকিস্তানকে এফ-১৬, আমেরিকাতে দাঁড়িয়েই বাইডেনকে একহাত নিলেন বিদেশমন্ত্রী জয়শঙ্কর

এই সিদ্ধান্ত আমেরিকার ‘ইন্ডিয়া ফার্স্ট’ নীতির পরিপন্থী

পাকিস্তানকে এফ-১৬, আমেরিকাতে দাঁড়িয়েই বাইডেনকে একহাত নিলেন বিদেশমন্ত্রী জয়শঙ্কর

আরোহী নিউজডেস্ক: সম্প্রতি পাকিস্তানকে এফ-১৬ যুদ্ধবিমান আধুনিকীকরণের সরঞ্জাম দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে জো বাইডেন সরকার। ভারতের উদ্বেগ উপেক্ষা করেই এই সিদ্ধান্ত বাইডেন প্রশাসনের। এবার আমেরিকার মাটিতে দাঁড়িয়েই জো বাইডেন প্রশাসনের এই সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করলেন ভারতের বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর। এই সিদ্ধান্তের কড়া সমালোচনা করে তিনি বলেন, 'আপনারা আমাদের বোকা বানানোর চেষ্টা করবেন না'।

উল্লেখ্য, বাইডেনের পূর্বসূরি প্রাক্তন মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার জমানায় পাকিস্তানকে পরমাণু অস্ত্র বহনে সক্ষম এফ-১৬ যুদ্ধবিমান দিয়েছিল ওয়াশিংটন। সেই চুক্তিতেই উল্লেখ ছিল ভবিষ্যতে ওই যুদ্ধবিমানগুলির আধুনিকীকরণে সহায়তার বিষয়টি ছিল। সম্প্রতি পেন্টাগনের তরফে ইসলামাবাদের জন্য যে সামরিক প্যাকেজ ঘোষণা করা হয়েছে তাতে ‘সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের জন্য’ ওই যুদ্ধবিমানগুলির আধুনিকীকরণে সহায়তার বিষয়টি রয়েছে। এই বিষয়ে কড়া সমালোচনা করেছিল ভারত। তবুও জো বাইডেন সরকার ভারতের আপত্তি মানেনি। এবার আমেরিকার মাটিতে দাঁড়িয়েই পাল্টা দিলেন ভারতের বিদেশমন্ত্রী। তিনি বলেন, "এই সিদ্ধান্ত আমেরিকার ‘ইন্ডিয়া ফার্স্ট’ নীতির পরিপন্থী। সকলেই জানেন, ওই যুদ্ধবিমান কাদের বিরুদ্ধে ব্যবহার করা হবে"।

প্রসঙ্গত, ২০১৯ সালে বালাকোট-কাণ্ডের পর আমেরিকার দেওয়া শর্ত লঙ্ঘন করে ভারতের বিরুদ্ধে এফ-১৬ ব্যবহারের অভিযোগ উঠেছিল পাক বিমানবাহিনীর বিরুদ্ধে। যা নিয়ে তুমুল বিতর্ক হয়। তবুও বাইডেন সরকার পাকিস্তানকে এফ১৬ যুদ্ধবিমানের আধুনিকীকরণে সহায়তা প্যাকেজ দিতে উদ্যোগী হয়েছে। এই প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে আমেরিকাকে খোঁচা দিয়ে বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর বলেন, বাইডেন সরকারের সিদ্ধান্তে আমেরিকাও উপকৃত হবে না।