দেশের ৪০টি রেল স্টেশনে তৈরি হচ্ছে শপিংমল, বাংলার কোথায়?

কয়েকবছর আগে পর্যন্ত বিভিন্ন রেল স্টেশনের দেয়ালে পানের পিক, নোংরা প্ল্যাটফর্ম দেখা যেত

দেশের ৪০টি রেল স্টেশনে তৈরি হচ্ছে শপিংমল, বাংলার কোথায়?

আরোহী নিউজডেস্ক: কয়েকবছর আগে পর্যন্ত বিভিন্ন রেল স্টেশনের দেয়ালে পানের পিক, নোংরা প্ল্যাটফর্ম দেখা যেত। তবে বর্তমানে এই চিত্রে অনেকটাই বদল এসেছে। এখন ঝাঁ চকচকে প্ল্যাটফর্ম, স্টেশন বিল্ডিং, অন্দরসজ্জা, পরিচ্ছন্ন প্রতিক্ষালয়  নজর কাড়ছে রেলযাত্রীদের। পাশাপাশি ট্রেনের হাল, পরিচ্ছন্নতাও চোখে পড়ার মতো। এবার যাত্রী সুবিধা ও মনোরঞ্জনের দিকে নজর দিয়েছে রেল। দেশের বৃহত্তম গণপরিবহন সংস্থার তরফ থেকে জানা যাচ্ছে, এবার দেশের ৪০টি স্টেশনে তৈরি হচ্ছে মিনি শপিংমল ও ফুড কোর্ট।

 

রেলের পরিকল্পনা অনুযায়ী,  স্টেশনের ছাদে এই মিনি শপিং মলগুলি গড়ে তোলা হবে। সবচেয়ে বড় কথা এই ৪০টি রেল স্টেশনের মধ্যে বাংলার একমাত্র নিউ জলপাইগুড়ি স্টেশনের নাম রয়েছে। সব স্টেশনের জন্য আলাদা আলাদা অর্থও বরাদ্দ করেছে রেলমন্ত্রক। তৈরি হয়ে গিয়েছে নীল নকশা, এবার শুরু হবে কাজ। পাবলিক-প্রাইভেট পার্টনারশিপেই এই প্রকল্প রূপায়ন করা হবে। স্টেশনের ছাদে হবে শপিংমলগুলি। সেখানে আলাদা করে থাকবে ঝাঁ চকচকে ফুডকোর্ট। রেলযাত্রীদের পাশাপাশি সাধারণ মানুষও এই শপিংমলে ঢুকতে পারবেন। ফলে শপিংমলগুলিতে প্রবেশ ও প্রস্থানের আলাদা পথ করা হবে। এবার দেখে নিন কোন স্টেশনের জন্য কত টাকা বরাদ্দ করল রেল।

জম্মু-তাওয়াইয়ের জন্য ২৬২ কোটি টাকা

প্রয়াগরাজ স্টেশনের জন্য ৯৬০ কোটি টাকা

লখনউয়ের জন্য জন্য ৪৯৪ কোটি টাকা

গোয়ালিয়রের জন্য ৫৪৫ কোটি টাকা

উদয়পুরের জন্য ৩৫৮ কোটি টাকা

নিউ জলপাইগুড়ির জন্য ৩৫৩ কোটি টাকা

ভুবনেশ্বরের জন্য ৩০৮ কোটি টাকা

কন্যাকুমারীর জন্য ৬১ কোটি টাকা

নেল্লোরের জন্য ৯১ কোটি টাকা

চেন্নাইয়ের জন্য ৮৪২ কোটি টাকা

এর্নাকুলামের জন্য ৪৪৫ কোটি টাকা