পঞ্জাবে ক্ষমতায় এলে মহিলাদের ভাতা ঘোষণা কেজরির

 পঞ্জাবে ক্ষমতায় এলে মহিলাদের ভাতা ঘোষণা কেজরির

আরোহী নিউজ ডেস্ক : এ রাজ্যের  মতন পঞ্জাবেও চালু হতে পারে মহিলাদের জন্য বিশেষ ভাতা। সোমবার পঞ্জাবের মোগা শহরে বিশাল  সভার আয়োজন করেছিল আম  আদমি পার্টি। সেই সভা থেকে সে রাজ্যের  মহিলাদের জন্য বিশেষ ভাতা ঘোষণা করলো আপ প্রধান অরবিন্দ কেজরিওয়াল।

 সভা থেকে  কেজরিওয়াল বলেন, " ২০২২ সালে পঞ্জাবে আপ  সরকার গড়লেই  রাজ্যের প্রত্যেক  আঠারো উর্দ্ধ  মহিলাকে প্রতি মাসে ১ হাজার টাকা করে ভাতা দেওয়া হবে"। আসন্ন পঞ্জাব বিধানসভা নির্বাচনের আগে সে রাজ্যে নিজেদের জেতাতে  ভোট প্রচারে মরিয়া  হয়ে উঠেছে আপ । পঞ্জাব বিধানসভা নির্বাচনকে সামনে রেখে ইতিমধ্যে “পাঞ্জাব মিশন” শুরু করেছেন অরবিন্দ কেজরিওয়াল। 

প্রচারে নেমে বার বারই  দিল্লিকে সুশাসনের রাজনৈতিক মডেল তুলে ধরতে চান কেজরি। সোমবার পঞ্জাবের সভা থেকে এদিন এই প্রকল্প ঘোষণা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, নারীর শক্তিকে বিকশিত করতে এটিই “বিশ্বের সবচেয়ে বড় প্রকল্প”। নারীর ক্ষমতায়নে এ রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী 'লক্ষ্মী ভান্ডারে' প্রকল্পে  মাসিক ৫০০ টাকা করে ভাতা দিয়ে থাকে। আর হলেও কেজরির এই ঘোষণা যাহ নিঃসন্দেহে মোদী-বিরোধী বার্তা দেবে বলে  মত রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের।

প্রসঙ্গত, আসন্ন ৫ রাজ্যে বিধানসভা নির্বাচনে  নিজেদের প্রমান করতে মরিয়া আপ। এর আগে  গোয়ায় নিজের দলের  প্রচারে গিয়ে   কেজরীওয়াল  ঘোষণা করেন গোয়ায় তারা শাসনে আসলে গোয়াবাসীদের নিখরচায় অযোধ্যার রাম মন্দির দেখাতে নিয়ে যাওয়ার প্রতিশ্রুতি দেন তিনি। পাশাপাশি খ্রিস্টানদের তামিলনাড়ুর ভেলানকান্নির ব্যাসিলিকা ও মুসলিমদের অজমেঢ় শরিফেও নিয়ে যাবে বলে ঘোষণা করেছিলেন আপ সুপ্রিমো অরবিন্দ কেজরিওয়াল।সোমবার  ছিল তাঁর  পঞ্জাব সফরের প্রথমদিন ছিল