সাংবাদিক সম্মেলনের মাধ্যমে নিজের পুজোর গান গেয়ে বাংলা গানের পাশে দাঁড়ানোর ডাক বাবুল সুপ্রিয়র

bengal, minister, babul supriyo, press conferene

সাংবাদিক সম্মেলনের মাধ্যমে নিজের পুজোর গান গেয়ে বাংলা গানের পাশে দাঁড়ানোর ডাক  বাবুল সুপ্রিয়র

আরোহী নিউজ ডেস্ক: তৃতীয়ায় প্রেস ক্লাব থেকে বাংলা গানের পাশে দাঁড়ানোর ডাক দিলেন বাবুল সুপ্রিয়। দীর্ঘ গান-জীবনে এই প্রথম তিনি পুজোর গান গেয়েছেন। সৌজন্যে আশা অডিয়ো। মহালয়ায় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উপস্থিতিতে উদ্বোধন হয় বাবুলের 'জয় মা দুগ্গা' একক গানের।এ দিন ছোট মেয়ে নয়নাকে কোলে নিয়ে সেই গান প্রকাশ্যে আনলেন। গানপ্রকাশের পাশাপাশি মনের ক্ষোভও প্রকাশ করলেন গায়ক, শাসকদলের প্রতিমন্ত্রী। তাঁর ক্ষোভ, ''বাংলা গানের দুরবস্থা সত্যিই ভাবাচ্ছে। সবাই ১৫০, ২০০ টাকা খরচ করে রোল-বিরিয়ানি কিনবেন। গানের পিছনে কেউ মাত্র ১৫ টাকাও খরচ করবেন না!'' নিজের তৈরি গানের কলি গিয়ে নস্টালজিয়ায় ভাসলেন বাবুল সুপ্রিয়। ফিরে গেলেন সে সময় যখন পুজোর জন্য আলাদা করে গান তৈরি হত। যে গান শুনে বাকি বাঙালির মতো তিনিও বড় হয়েছেন।


বাবুলের কথায়, ''তখন রেকর্ডের এক পিঠে হেমন্ত মুখোপাধ্যায়। অন্য পিঠে হয়তো মান্না দে। সলিল চৌধুরী দুই খ্যাতনামী শিল্পীর জন্যই গান বাঁধছেন। সুর দিচ্ছেন। তবু তাতে কত বৈচিত্র। বাঙালিও অপেক্ষা করত পুজোর গানের জন্য। পুজোয় চাই নতুন জামা, শাড়ি, জুতোর মতোই গানও। এখন সে সবই সোনালি অতীত।'' গায়ক হওয়ার পরে তাই স্বপ্ন দেখতেন, তিনিও পুজোর গান গাইবেন। পাড়ায় পাড়ায় পুজোর সময় তাঁর গান বাজবে। তিনি সপরিবার কান পেতে শুনবেন। কিন্তু এই প্রজন্ম বাকি সব করছে। যত অনীহা গানের বেলায়! তারা গান কিনতে বা শুনতে ন্যূনতম খরচ করতেও রাজি নয়। বাবুল তাই আন্তরিক কৃতজ্ঞ আশা অডিয়োর বর্তমান ভারপ্রাপ্ত অপেক্ষা লাহিড়ির কাছে।